ইসলামী ব্যাংক শরীয়াহ ভিত্তিক পরিচালিত ব্যাংক ব্যবস্থা

0
862

ইসলামী ব্যাংক হচ্ছে- ইসলামী শরীয়াহর ভিত্তিতে পরিচালিত সুদবিহীন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান। কেউ হয়তাে মনে করতে পারেন যে, কোন ব্যাংক বা প্রতিষ্ঠান থেকে সুদ প্রথাকে রহিত করা হলেই বুঝি তা ইসলামী ব্যাংক বা ইসলামী প্রতিষ্ঠান হয়ে যায়। আসলে তা নয়। কোন ব্যাংক বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানকে ইসলামিক হতে হলে তার যাবতীয় কর্মকাণ্ডের সকল স্তরেই ইসলামী শরীয়াহর নীতিমালাকে অনুসরণ করতে হবে।

কেউ যদি কোন প্রতিষ্ঠানকে ইসলামি প্রতিষ্ঠান বলে দাবী করে কিংবা প্রতিষ্ঠানের সাইন বাের্ড- এ ইসলাম শব্দ ব্যবহার করে অথবা প্রতিষ্ঠানের কিছু কিছু কর্মকান্ডে ইসলামী শরীয়াহর নীতিমালাকে অনুসরণ করে, আবার কিছু কিছু কর্মকাণ্ডে ইসলামী শরীয়াহর নীতিমালাকে উপেক্ষা করে চলে, তাহলে সেটিকে প্রকৃত ও সম্পূর্ণরূপে ইসলামী প্রতিষ্ঠান বলা যায় না।

অবশ্য কোন প্রতিষ্ঠান যদি তার কিছু কিছু কর্মকান্ডে ইসলামী শরীয়াহকে অনুসরণ করে, তাহলে সেটিতে আংশিক ইসলামিক বলা যেতে পারে। একটি প্রতিষ্ঠান প্রকৃতপক্ষে এবং সম্পূর্ণরূপে ইসলামিক তথনই হবে, যখন তার কর্মকান্ডের সকল স্তরে ইসলামী শরীয়াহর নীতিমালাকে পরিপূর্ণভাবে মেনে চলে এবং মেনে চলতে বাধ্য থাকে।

কেউ কেউ হয়তো মনে করে থাকেন যে, প্রচলিত ব্যাংক ব্যবস্থাই তো লেনদেনের জন্য যথেষ্ট। কেননা, এ সকল ব্যাংকের মাধ্যমেই মানুষ তাদের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড চালিয়ে যেতে পারে। সুতরাং ইসলামী ব্যাংকের আবার কি প্রয়োজন আছে? এ প্রসংগে বলা যায় যে, ইসলাম হচ্ছে একটি পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থা। মানুষের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, পারিবারিক, ব্যক্তিগত, বাণিজ্যিক, পারস্পরিক সম্পর্ক, অধিকার প্রভৃতি সকল ক্ষেত্রেই মহান আল্লাহ ও তার রাসূল (সা) জীবন বিধান দিয়েছেন যা মানব জাতির জন্যে কল্যাণকর।

অর্থনীতি ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে আল্লাহ ও তার রাসূলের বিধান তথা ইসলামী অর্থ ব্যবস্থা কায়েম করতে হলে ইসলামী ব্যাংকের প্রয়ােজনীয়তা অপরিসীম। ইসলামী ব্যাংকিং হলাে ইসলামী অর্থ ব্যবস্থার একটি দিক। বর্তমান বিশে অন্তহীন সমস্যার উৎস হলাে অর্থনীতি। দারিদ্র, বেকারত্ব, অর্থনৈতিক ও সামাজিক বৈষম্য, মুদ্রাস্ফীতি, শােষণ, জুলুম, শ্রেণীগত সংঘাত এসবের ক্রমবর্ধমান চাপে বিশ্বমানবতা আজ বিপর্যস্ত। পুঁজিবাদ, সমাজতন্ত্র কিংবা মানবরচিত অন্য কোন অর্থ ব্যবস্থাই মানবতার এ বিপর্যয়কে রােধ করতে পারেনি। এক্ষেত্রে বিশ্ব মানবতার একমাত্র মুক্তির পথ নিশ্চিত করতে পেরেছে আল্লাহ তায়ালার নির্দেশিত ও মহানবীর (সা) প্রবর্তীত ইসলামী অর্থ ব্যবস্থা। ইসলামী ব্যাংকিং ইসলামী অর্থ ব্যবস্থারই একটি অংশ।

Leave a Reply