চেক পেমেন্টের ক্ষেত্রে ব্যাংক ক্যাশিয়ারের করণীয়

4
8462

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ সাম্প্রতিককালে চেক জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রাহকের হিসাব থেকে অর্থ আত্মসাতের ঘটনা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিভিন্ন ধরনের উন্নত প্রযুক্তি, অনলাইন ব্যাংকিং, গ্রাহকের সরলতার সুযোগ ইত্যাদিকে কাজে লাগিয়ে নগদ এবং ক্লিয়ারিং চেক জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন সঙ্ঘবদ্ধ প্রতারকচক্র গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাব থেকে অর্থ আত্মসাৎ করে চলছে যা গ্রাহকের স্বার্থ ক্ষুণ্ন করার পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যাংকের ভাবমূর্তিকেও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

নিম্নে চেক পেমেন্টের ক্ষেত্রে ব্যাংক ক্যাশিয়ারের করণীয় সমূহ তুলে ধরা হলো
বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ইস্যুকৃত পিএসডি সার্কুলার নং ০৪/২০১৩ তারিখঃ ২৬/১১/২০১৩ এর মাধ্যমে Positive Pay Instruction গ্রহণ করার নির্দেশনা BACH এর ক্ষেত্রে এখনও বহাল রয়েছে। সার্কুলারটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে Positive Pay Instruction বা সাতদিনের নোটিশ ছাড়া ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) বা তদুর্ব্ধ টাকার কোন চেক পেমেন্ট করা যাবে না।

চেক পেমেন্ট জমাকৃত চেক পেমেন্ট এর জন্য চেকের পাতাটি সঠিক (Original) কিনা তা প্রথমত ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখতে হবে প্রয়োজনে Heavy Duty Multi-functional MICR চেক বা Fake Note Detectingমেশিন ব্যবহার করে তা পরীক্ষা করতে হবে

চেক নম্বর, হিসাব নম্বর, তারিখ, গ্রাহকের মুদ্রিত নাম ও হিসাব নম্বর, কথায় এবং অঙ্কে টাকার পরিমান ইত্যাদিতে কোন প্রকারের ঘষামাজা বা কাটাকাটি আছে কিনা তা ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখতে হবে

চেক এর গায়ে জলছাপ (Watermark) আকারে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের মনোগ্রাম, অতিবেগুনি রশ্মি (UV- Ultra Violet Ray) এবং Micro Text সঠিকভাবে আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিশ্চিত করতে হবে

অপরিচিত বাহক মারফত পেমেন্টের জন্য কোন Cheque উপস্থাপন করা হলে ব্যাংকের রেকর্ডে সংরক্ষিত গ্রাহকের মোবাইল, টেলিফোন নম্বর অথবা ইমেইলে যোগাযোগ করে নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কোনো চেক পেমেন্ট করা যাবে না

বিদেশে অবস্থানরত গ্রাহকের Cheque পেমেন্টের ক্ষেত্রে অধিকতর সতর্কতামূলক পন্থা অবলম্বন করতে হবে গ্রাহক কর্তৃক চেক প্রদানের সঠিকতা নিশ্চিত না করে এরূপ চেক কখনোই পেমেন্ট করা যাবে না
কোনো অবস্থাতেই ব্যাংকের রেকর্ডে নেই এমন কোন মোবাইল ফোন বা টেলিফোন নম্বর বা ইমেইল থেকে কোন অনুরোধ প্রাপ্ত হলে তা রাখা যাবে না।

এ ক্ষেত্রে গ্রাহকের ছবি ও স্বাক্ষরের সঠিকতা যথাযথভাবে যাচাই করতে হবে। অধিকতর সর্তকতা অবলম্বনে, আধুনিক প্রযুক্তি (Imo, Skype, Viber, Google Duo etc) ব্যবহার করে ভিডিও কল এর মাধ্যমে গ্রাহকদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনে চেক প্রদানের সত্যতা যাচাই এবং গ্রাহকের ছবি মিলিয়ে দেখা যেতে পারে।

জালজালিয়াতির ক্ষেত্রে গ্রাহকরুপি প্রতারক অধিকাংশ সময় তাড়াহুড়া করে এবং ফোনে বা মোবাইলে ব্যস্ত থেকে বোঝাতে চা যে সে খুব গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি তার খুব তাড়া রয়েছে বিভিন্ন প্রশ্ন করে বা কর্মকর্তাদের আলাপচারিতায় লিপ্ত করে মনোযোগ নষ্ট করার পায়তারা করে থাকে এ বিষয়গুলি সতর্কতার সাথে পর্যবেক্ষণ করতে হবে

বাহক অনলাইন চেক উপস্থাপন করলে তাঁর Short KYC ফরম পূরণের পাশাপাশি গ্রাহকের জাতীয় পরিচয় পত্র/পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স/চাকরির পরিচয় পত্র অথবা অন্য কোন ছবি সম্বলিত আইডি কার্ড নিতে হবে এবং তা যাচাই করে নিশ্চিত হতে হবে। পরিচয় নিশ্চিত হওয়া না গেলে চেক প্রত্যাখ্যান করতে হবে

অনলাইন চেক পেমেন্টের ক্ষেত্রে কোনরূপ সন্দেহের সৃষ্টি হলে সংশ্লিষ্ট শাখার ব্যবস্থাপক বা সেকেন্ড অফিসারের সাথে যোগাযোগ করে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা যেতে পারে

নন এমআইসিআর চেক অনলাইন লেনদেনের ক্ষেত্রে জমা ও উত্তোলনে সর্বাধিক সর্তকতা অবলম্বন করা উচিত। এ ক্ষেত্রে গ্রাহক যথাযথভাবে ব্যাংক কর্তৃক শনাক্ত না হলে আশঙ্কাজনক ঝুঁকির সম্ভাবনা থাকে এক্ষেত্রে জমাদানকারী এবং উত্তোলনকারী উভয়ের CDD বাধ্যতামূলক এক্ষেত্রে Payment Instruction, গ্রাহকের ফোন কল, কল করার স্থান উপযুক্তভাবে যাচাই করতে হবে

বড় অঙ্কের কোন লেনদেনের ক্ষেত্রে সর্বাধিক সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে এ জাতীয় চেক কাউন্টারে পেমেন্টের ক্ষেত্রে সতর্কতার সাথে প্রয়োজনীয় Payment Instruction অনুসরণ করতে হবে

অনলাইন বা অন্য শাখায় জমা হবে এমন চেক ট্রান্সফারের পূর্বে সর্বোচ্চ সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে এ ধরনের চেক যদি বাহক মারফত জমা করা হয়, তাহলে বাহকের পরিচিতি (প্রয়োজনে গ্রাহককে ফোন করে) নিশ্চিত করতে হবে বাহকের পরিচিতি নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হলে অনলাইন চেক জমা নেয়া যাবে না এক্ষেত্রে বাহককে গ্রাহকের শাখায় উত্তর চেক জমা করার জন্য পরামর্শ দেয়া যেতে পারে সংঘটিত জালজালিয়াতিতে দুষ্কৃতিকারীরা ভুয়া পরিচয় দিয়ে বাহক বেশে জাল চেক জমা করে থাকে

কোন চেক যদি কোন একাউন্টের মাধ্যমে অর্থ স্থানান্তরের জন্য ব্যাংকে জমা করা হয় তাহলে সেই ক্ষেত্রেও সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে এক্ষেত্রে চেকের বাহক বা একাউন্ট পেয়ী অথবা চেকটি যাকে প্রদান করা হয়েছে সেই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ব্যাংক হিসাবে জমা হচ্ছে কিনা তা যথাযথভাবে পরীক্ষানিরীক্ষা করে দেখতে হবে

গ্রাহক কর্তৃক সরবরাহকৃত এবং ব্যাংকে সংরক্ষিত গ্রাহকের মোবাইল নম্বর/টেলিফোন নম্বর/ইমেইল ঠিকানা সব সময় হালনাগাদ রাখতে হবে এই হালনাগাদ নম্বরসমূহের মাধ্যমে গ্রাহকের সকল তথ্য যাচাইবাছাই ও পরীক্ষানিরীক্ষা করে দেখতে হবে

4 মন্তব্যসমূহ

Leave a Reply