করােনা ভাইরাস প্রতিরােধে ইসলামী ব্যাংকের গৃহীত পদক্ষেপ সমূহ

0
1384

করােনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরােধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে জারিকৃত অত্র ব্যাংকের সার্কুলার লেটার নং এইচআরডব্লিউ/২০২০/১২৫৩৯ তারিখ: ১৬.০৩.২০২০ এর প্রতি সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে, যেখানে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের প্রতিরােধে সার্বিক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের অংশ হিসাবে করণীয় বিষয়সমূহের পরিপালনের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। উক্ত সার্কুলার লেটারে উল্লেখিত করণীয় বিষয়সমূহের পরিপালনের পাশাপাশি, এক্ষণে উপযুক্ত বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিআরপিডি সার্কুলার নং ০৫, তারিখ: ২২ মার্চ, ২০২০ এর নির্দেশনাসমূহ সকলের অবগতি ও প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নিম্নে হুবহু উদ্ধৃত করা হলাে:

Quote-
করােনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরােধে সরকার কর্তৃক বিভিন্ন নির্দেশনা ইতােমধ্যে প্রদান করা হয়েছে এবং প্রয়ােজনীয় কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। বাংলাদেশের মতাে জনবহুল ও ঘনবসতিপূর্ণ দেশে নভেল করােনা ভাইরাসের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন (সামাজিকভাবে একজন থেকে আরেকজনে ছড়িয়ে পড়া) প্রতিরােধ করা এখন অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ। ব্যাংকিং সেবা ও কার্যক্রম সমূহের বৈশিষ্ট্য (mode of operation) বিবেচনায় এ খাত করােনা ভাইরাসের কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের ক্ষেত্রে অত্যন্ত সংবেদনশীল। এ পর্যায়ে, করােনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এবং বিশেষত এর কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ঠেকাতে ব্যাংকগুলােকে নিম্নবর্ণিত নির্দেশনাসমূহ অনুসরণ করার পরামর্শ প্রদান করা যাচ্ছে:

১) ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে প্রতিটি ব্যাংক তাদের প্রধান কার্যালয়ে একটি কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম গঠন করবে যাতে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ব্যাংকের পক্ষ থেকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রয়ােজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে। একইভাবে প্রতিটি বিভাগ/ জোন/ এরিয়া অফিসে ‘কুইক রেসপন্স টিম’ গঠন করতে হবে। কোনাে বিভাগ/ জোন/ এরিয়া অফিসের আওতায় বিশেষ কোনাে সিদ্ধান্তের প্রয়ােজন হলে ‘কুইক রেসপন্স টিম’ দ্রুততম সময়ের মধ্যে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে এবং প্রয়ােজনে কেন্দ্রীয় ‘কুইক রেসপন্স টিম’ এর সাথে তাৎক্ষণিক আলাপ আলােচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করবে। এরূপ টিমের সদস্যদের নাম, পদবী, মােবাইল নম্বরসহ প্রয়ােজনীয় তথ্যাদি ব্যাংকের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে।

২) প্রতিটি ব্যাংক তাদের জরুরী ব্যাংকিং সেবার তালিকা প্রস্তুত করবে এবং বিশেষ পরিস্থিতিতেও যাতে এরূপ সেবা প্রদানে বিঘ্ন সৃষ্টি না হয় সে লক্ষ্যে প্রয়ােজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

৩) ব্যাংকের গ্রাহকসেবা গ্রহীতাগণ যাতে ব্যাংক কার্যালয়ে/ শাখায়/ উপশাখায় সশরীরে উপস্থিত না হয়েই তাদের কাংখিত সেবা গ্রহণ করতে পারে সে লক্ষ্যে সকল ব্যাংককে তাদের অন-লাইন সেবা আরাে জোরদার করতে হবে। ব্যাংকের গ্রাহকদের মোবাইল ইন্টারনেট ব্যাংকিং এ উৎসাহিত করার লক্ষ্যে প্রয়ােজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। যে সকল ব্যাংকিং সেবা ব্যাংকের হটলাইন/ কল সেন্টার থেকে দেয়া সম্ভব সে সকল সেবাসমূহ উক্ত মাধ্যমেই প্রদান করতে হবে। ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে গ্রাহককে প্রাথমিকভাবে ব্যাংকের হটলাইন/ কল সেন্টারে যােগাযােগ করার অনুরােধ করাসহ ব্যাংকের হটলাইনকিল সেন্টার এর মাধ্যমে প্রদেয় সেবার তালিকা এসএমএস-এর মাধ্যমে গ্রাহককে অবহিত করতে হবে এবং বিস্তারিত ব্যাংকের ওয়েবসাইটে ও প্রতিটি শাখায় সহজে দৃষ্টিগােচর হয় এরূপ স্থানে প্রদর্শন করতে হবে। হটলাইন/ কল সেন্টারে প্রয়ােজনীয় সংখ্যক ব্যাংকের কর্মকর্তা নিয়ােজিত করতে হবে।

৪) ব্যাংকের সকল কর্মকর্তা/ কর্মচারীদের কর্মপরিধি অনুযায়ী তাদেরকে ন্যূনতম ২টি সেট (Mutually Exclusive and Supplementary Set) এ বিভক্ত করে সাপ্তাহিক ভিত্তিতে রেশনিং/ রােস্টারিং এর মাধ্যমে অফিসের কার্যাবলী সম্পন্ন করতে হবে। গ্রাহকের কাংখিত সেবা প্রাপ্তিতে যাতে কোনাে বিঘ্ন সৃষ্টি না হয় সে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এরূপ রেশনিং/ রােস্টারিং করতে হবে। তবে, যে সকল কর্মকর্তা/ কর্মচারী রেশনিং/ রােস্টারিং এর আওতায় নিজ গৃহে অবস্থান করবেন, তারা আবশ্যিকভাবে নিজ গৃহ থেকে যথাসম্ভব অফিসের কাজে নিয়ােজিত থাকবেন এবং জরুরী প্রয়ােজনে কর্মস্থলে যােগদানের জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকবেন। উল্লেখ্য, এ নির্দেশনা ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ সকল স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য হবে।

৫) করােনা ভাইরাসের প্রতি সংবেদনশীল ব্যাংক কর্মকর্তা কর্মচারীদের তালিকা নিয়মিত হালনাগাদ করতে হবে। ব্যাংকের কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারীর মধ্যে ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার লক্ষণ পরিলক্ষিত হলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ যথাশীঘ্র প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ব্যাংকে কর্মরত কোন কর্মকর্তা/ কর্মচারী অথবা পরিবারের কোন সদস্য করােনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে বা করােনা আক্রান্তের কোন লক্ষণ দেখা দিলে বা কোনাে কারণে করােনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার ঘটনা ঘটলে তাকে মেডিকেল সার্টিফিকেটের ভিত্তিতে বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টিন ছুটি হিসেবে ১৪ দিন বিশেষ ছুটি দিতে হবে। এই প্রকার ছুটি ‘ছুটি হিসাব’ হতে ডেবিট করা যাবে না এবং ছুটিকালকে কর্মকাল হিসেবে গণ্য করে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/ কর্মচারীকে স্বাভাবিক নিয়মানুসারে বেতনভাতাদি প্রদান করতে হবে।

৬) জরুরী প্রয়ােজন ব্যতীত কোনাে সভা-সেমিনারের আয়ােজন যথাসম্ভব পরিহার করতে হবে। তবে, জরুরী প্রয়ােজনে সভার আয়ােজন করতে হলে সভার প্রটোকল সংক্রান্ত WHO এর গাইডলাইন অনুসরণীয় হবে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমােদন ব্যতীত নিজ কার্যালয় হতে অপর কোনাে কার্যালয়ে স্থানে গমন করা যাবে না। এছাড়া কোন সভা-সেমিনারে অংশগ্রহণ বা অফিস/ ব্যক্তিগত কোনাে কাজে বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের বাইরে গমন করা যাবে না।

৭) বিভিন্ন অফিসদস্তাবেজ হতে চিঠি-পত্র/ দলিল-দস্তাবেজ নিয়ে আগত বহিরাগত ব্যক্তিদের ব্যাংকের ভিতরে গমনাগমনে নিরুৎসাহিত করার লক্ষ্যে স্ব-স্ব ব্যাংকের শাখা, উপশাখা ও কার্যালয়ের নিদিষ্ট স্থানে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তির মাধ্যমে চিঠিপত্র গ্রহণ ও বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৮) ব্যাংক শাখা, উপশাখা, এজেন্টসহ সকল কার্যালয়ের অভ্যন্তরে প্রবেশ স্থানে করােনা ভাইরাসে আক্রান্ত রােগী সনাক্তকরণের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৯) ব্যাংক শাখা, উপশাখা, এজেন্টসহ সকল কার্যালয়ের অভ্যন্তরে চলাচলের পথ, দরজার হাতল, লিফট ও অন্যান্য যেসব স্থানে হাতের স্পর্শ লাগতে পারে সেসব স্থান কর্মদিবস শুরুর পূর্বে, পরে এবং কর্মদিবসে প্রতি ০১ (এক) ঘন্টা পর পর নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন (Sterilize) করার প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

১০ ) ব্যাংক শাখা, উপশাখা, এজেন্টসহ সকল কার্যালয়ের প্রতিটি ফ্লোরে/ বিভাগে পর্যাপ্ত সংখ্যক হ্যান্ড স্যানিটাইজার (Hand Sanitizer), ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিন ও টিস্যু পেপার রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

১১) শিশুদিবা-যত্ন কেন্দ্র/ ডে-কেয়ার (যদি থাকে) নিয়মিত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখাসহ Sterlize করতে হবে। এছাড়া পরিচালনার দায়িত্বে নিয়ােজিত কর্মকর্তা কর্মচারীদেরকে সার্বক্ষণিকভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ব্যবহারসহ হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক ও প্রতিরােধমূলক পােষাক পরিধান করতে হবে।

১২) ব্যাংকের মুদ্রা বিনিময়, স্থানান্তর এবং Sorting এর জন্য নির্দিষ্ট স্থান বরাদ্দ রাখতে হবে এবং উক্ত স্থান/ স্থানসমূহ Sterlize নিশ্চিত করতে হবে।

১৩) ব্যাংকিং কার্যক্রম ব্যতীত দর্শনার্থী/ সাক্ষাৎ প্রার্থীদের ব্যাংকে আগমন নিরুৎসাহিত করতে হবে। ব্যাংকে উপস্থিত সকলের মধ্যে যাতে নির্দিষ্ট দূরত্ব (WHO এর গাইডলাইন অনুযায়ী) বজায় থাকে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

১৪) ব্যাংকের সকল প্রকার সেলস/ মার্কেটিং কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার উৎসাহিত করতে হবে।

১৫) করােনা ভাইরাস প্রতিরােধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, WHO ও IEDCR কতৃর্ক প্রণীত নির্দেশনাসমূহ একীভূত করে “করােনা ভাইরাস প্রতিরােধমূলক ব্যবস্থায় করণীয়” বিষয়ে লিফলেট/ পােস্টার তৈরি করে তা ব্যাংকের শাখা/ আঞ্চলিক বিভাগীয়/ প্রধান কার্যালয়ের প্রতিটি ফ্লোরে সহজেই দৃষ্টিগােচর হয় এমন স্থানে স্থাপন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে এবং নির্দেশনাসমূহ যথাযথভাবে পরিপালিত হচ্ছে কিনা তা নিয়মিতভাবে তদারকি করতে হবে।

১৪) ব্যাংকের সান্ধ্যকালীন এবং সপ্তাহ অন্তের (শুক্রবার ও শনিবার) সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে এবং পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে। ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হলাে।
-Unquote.

উপরিউক্ত অবস্থার প্রেক্ষিতে করােনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিরােধে ব্যাংকের করণীয় সম্পর্কে বাংলাদেশ ব্যাংক কতৃক প্রদত্ত নির্দেশনাসমূহ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সূত্রস্থ সার্কুলারের ১ নং অনুচ্ছেদে উল্লেখিত নির্দেশনা অনুযায়ী প্রধান কার্যালয় এবং জোনাল অফিস ভিত্তিক ‘কুইক রেসপন্স টিম’ গঠন করা আবশ্যক। এ নির্দেশনাকে সামনে রেখে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় ভিত্তিক ‘কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম’ নিম্নরুপে গঠন করা হলাে:

প্রধান কার্যালয় ভিত্তিক কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম’-
জনাব মাে: মাহবুব উল আলম– টিম প্রধান
ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও
জনাব মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা– সদস্য
এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব মুহাম্মদ কায়সার আলী– সদস্য
এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব মাে: ওমর ফারুক খান– সদস্য
এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব মােহাম্মাদ আলী– সদস্য
ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব আবু রেজা মাে: ইয়াহিয়া– সদস্য
ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব জে কিউ এম হাবিবুল্লাহ, এফসিএস– সদস্য
ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর
জনাব মাে: সালেহ্ ইকবাল– সদস্য
ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর

জোনাল অফিস ভিত্তিক গঠিতব্য কুইক রেসপন্স টিম’-
❏ জোন প্রধানগণ নিজ নিজ জোনাল অফিসের ‘কুইক রেসপন্স টিম’ গঠন করবেন। তিনি এই টিম এর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন এবং জোনাল অফিসে কর্মরত নির্বাহী/ কর্মকর্তাদের মধ্য থেকে ৪/৫ জনকে সদস্য হিসাবে মনােনীত করবেন। এভাবে গঠিত ‘কুইক রেসপন্স টিম’ এর বিস্তারিত বিবরণ ‘কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম’ কে অবিলম্বে অবহিত করতে হবে।

উল্লেখ্য, ‘কুইক রেসপন্স টিম’ এর টিম প্রধান এবং অন্যান্য সদস্যদের নাম, পদবী এবং ব্যক্তিগত ফোন নম্বর ব্যাংকের ওয়েবসাইটে অবিলম্বে প্রকাশের ব্যবস্থা করতে হবে। ‘কুইক রেসপন্স টিম’ বাংলাদেশ ব্যাংকের সূত্রস্থ সার্কুলারের ১ নং অনুচ্ছেদে বর্ণিত দায় দায়িত্বের পরিপালন নিশ্চিত করবেন।

কর্মকর্তা কর্মচারীদের রেশনিং/ রােস্টারিং বাংলাদেশ ব্যাংকের সূত্রস্থ সার্কুলারের ৪ নং অনুচ্ছেদে বর্ণিত নির্দেশনা অনুযায়ী প্রধান কার্যালয়, আঞ্চলিক কার্যালয় এবং শাখা পর্যায়ে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের রেশনিং/ রােস্টারিং এর মাধ্যমে অফিসের কার্যাবলী সম্পন্ন করতে হবে। এমতাবস্থায়, শাখা পর্যায়ে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের রেশনিং/ রােস্টারিং নিম্নরূপে নির্ধারণ করতে হবে:

প্রধান কার্যালয় পর্যায়ে রেশনিং/ রােস্টারিং-
❏ এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টরগণ অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে ব্যংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মহােদয়ের অবগতির আলােকে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করবেন।
❏ ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টরগণ এবং তাঁদের স্ব-স্ব উইং এর অব্যবহিত কনিষ্ঠ নির্বাহীগণ অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে ব্যংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মহােদয়ের অবগতির আলােকে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করবেন।
❏ ডিভিশন প্রধানগণ এবং তাঁদের অব্যবহিত কনিষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তাগণ স্ব-স্ব উইং প্রধানের অবগতির আলােকে অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করবেন।

উইং/ ডিভিশন/ সেক্রেটারিয়েট পর্যায়ে রেশনিং/ রােস্টারিং-
❏ উইং/ ডিভিশন/ সেক্রেটারিয়েট এর প্রধানগণ তাদের আওতাধীন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্ব-স্ব কর্মপরিধির আলােকে ন্যূনতম দুই ভাগে বিভক্ত করে অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করার ব্যবস্থা করবেন।

জোনাল অফিস পর্যায়ে রেশনিং/ রােস্টারিং-
❏ জোন প্রধানগণ এবং তাঁদের অব্যবহিত কনিষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তাগণ ব্যংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মহােদয়ের অবগতির আলােকে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করবেন।
❏ জোন প্রধানগণ তাদের আওতাধীন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ নিজ কর্মপরিধির আলােকে ন্যূনতম দুই ভাগে বিভক্ত করে অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করার ব্যবস্থা করবেন।

কর্পোরেট শাখা/ শাখা পর্যায়ে রেশনিং/ রােস্টারিং-
❏ কর্পোরেট শাখা/ শাখা প্রধানগণ এবং ম্যানেজার অপারেশন্সগণ ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মহােদয়ের স্ব-স্ব জোন প্রধানের অবগতির আলােকে (প্রযােজ্য মতে) অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করবেন।
❏ কর্পোরেট শাখা/ শাখা প্রধানগণ শাখায় কর্মরত সকল জনশক্তিকে তাদের কর্মপরিধির আলােকে ন্যূনতম দুই ভাগে বিভক্ত করে অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে রােস্টার ভিত্তিতে/ পালাক্রমে সপ্তাহে ০৫ দিন (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার) অফিস করার ব্যবস্থা করবেন।

সান্ধ্যকালীন এবং শুক্রবার ও শনিবার সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখা-
❏ ব্যাংকের সান্ধ্যকালীন এবং সপ্তাহ অন্তের (শুক্রবার ও শনিবার) সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

উল্লেখ্য, যে সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী রােস্টার ভিত্তিক দায়িত্ব পালনকালে নিজগৃহে অবস্থান করবেন তারা কোন অবস্থাতেই বাড়ীর/ বাসার বাইরে যাবেন না। এ অবস্থায় তারা আবশ্যিকভাবে অফিসের কাজে নিয়ােজিত থাকবেন এবং জরুরী প্রয়ােজনে কর্মস্থলে উপস্থিত হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকবেন। এ বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য তাদেরকে সকল অবস্থায় অনলাইনে থাকতে হবে/ মােবাইল ফোন খােলা রাখতে হবে। যাতে করে যেকোন প্রয়ােজনে তাদের সাথে যােগাযোগ করা যায়।

উপরিউক্ত অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট সকলকে করােনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরােধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বর্ণিত করণীয় বিষয়সমূহের পরিপালন নিশ্চিত করার পাশাপাশি সার্বিক সাবধানতার অংশ হিসাবে এ সার্কুলার লেটারে উল্লেখিত বিষয়বস্তু স্ব-স্ব নিয়ন্ত্রণাধীন সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গােচরে নেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া যাচ্ছে।

জোনাল অফিসের ‘কুইক রেসপন্স টিম’ প্রধান কার্যালয় ভিত্তিক ‘কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম’ এর সাথে সার্বক্ষণিক যােগাযােগ রক্ষা করে চলবে এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে করােনা সংক্রমন সম্পর্কিত যেকোন সংবাদ, যদি থেকে থাকে, তাহলে অবিলম্বে হিউম্যান রিসাের্সেস উইং এর এসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব এ.এম.শহীদুল এমরান (মােবাইল নং-০১৮১৯-৯২৯৫০৫) এর মাধ্যমে প্রধান কার্যালয়ের ‘কেন্দ্রীয় কুইক রেসপন্স টিম’ কে অবহিত করবে। এই নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

আপনাদের বিশ্বস্ত,

(মাে: সালেহ্ ইকবাল)
ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিএইচআরও

(মাে: মাহবুব উল আলম)
ম্যানেজিং ডিরেক্টর এন্ড সিইও

সৌজন্যেঃ শামসুদ্দীন আকন্দ, অফিসার, আইবিবিএল

Leave a Reply