1. bankingnewsbd@gmail.com : ব্যাংকিং নিউজ : ব্যাংকিং নিউজ
  2. mosharafnbl@yahoo.com : মোশারফ হোসেন : মোশারফ হোসেন
  3. msakanda@yahoo.com : ইবনে নুর : ইবনে নুর
  4. shafiqueshams@gmail.com : Shamsuddin Akanda : Shamsuddin Akanda
  5. surjoopathik@ymail.com : শরিফুল ইসলাম : শরিফুল ইসলাম
  6. tasniapopy@gmail.com : তাসনিয়া তাবাসসুম : তাসনিয়া তাবাসসুম



ইসলামী ব্যাংক ডুয়েল কারেন্সি ‘গোল্ড ডেবিট কার্ড’

  • প্রকাশিত: শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

শামসুদ্দীন আকন্দঃ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড গ্রাহকদের সুবিধার্থে EMV চিপযুক্ত VISA ‘গোল্ড ডেবিট কার্ড’ (ডুয়েল কারেন্সি) চালু করেছে। এই ডেবিট কার্ড এর মাধ্যমে নগদ অর্থ উত্তোলন এবং ক্রয় সীমা বৃদ্ধির মাধ্যমে গ্রাহকরা ই-পেমেন্ট গেটওয়ে, এটিএম উত্তোলন এবং পিওএস পেমেন্ট সুবিধা সহ কেনাকাটা এবং বিদেশে গিয়ে ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন। এছাড়াও এর মাধ্যমে গ্রাহকরা সিএনজি স্টেশন, হাসপাতাল, কনফারেন্স হল, কমিউনিটি সেন্টার, চিকিৎসা ইত্যাদির বিল প্রদান করতে পারবেন এবং শাখা প্রাঙ্গনের ভিড় থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ড পাওয়ার নিয়মাবলী
ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড এর চেক বেয়ারিং গ্রাহকরা [ক) আল-ওয়াদিয়াহ চলতি হিসাব (AWCA), খ) মুদারাবা স্পেশাল নোটিশ ডিপোজিট হিসাব (MSND) এবং গ) মুদারাবা সঞ্চয়ী হিসাব (MSA)] VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ড পেতে তার নিজ নিজ শাখার মাধ্যমে অর্থাৎ যে শাখায় হিসাব খুলেছেন সে শাখায় আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ড এর বৈশিষ্ট্য
নিম্নে ইসলামী ব্যাংকের VISA গোল্ড ডেবিট কার্ডের বৈশিষ্ট্য সমূহ তুলে ধরা হলো-
✓ সম্পূর্ণরূপে সুরক্ষিত।
✓ বিশ্বব্যাপী বৈধ।
✓ বিশ্বব্যাপী যে কোনও VISA মার্চেন্ট আউটলেট থেকে POS লেনদেনে অ্যাক্সেস।
✓ ফরেন কারেন্সি কোটা অনুযায়ী লেনদেন সীমা।
✓ স্থানীয় এনপিএসবি এবং ভিসা নেট উভয়ের সাথেই সামঞ্জস্যপূর্ণ।
✓ আন্তর্জাতিক অর্থ উত্তোলন স্থানীয় রেগুলেশন অনুযায়ী হবে।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ডের সুবিধা
নিম্নে ইসলামী ব্যাংকের VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ডের সুবিধা সমূহ তুলে ধরা হলো-
✓ নগদ টাকা বহনের ঝুঁকি নেই;
✓ ATM/ CRM থেকে উত্তোলন করা যায়;
✓ দেশ/ বিদেশ থেকে টাকা উত্তোলন করা যায়;
✓ লাইফস্টাইল সমাধান পাওয়া যায়;
✓ নতুন একাউন্ট খোলার সাথে সাথে কার্ড পাওয়া যায়;
✓ POS এর মাধ্যমে কেনাকাটা করা যায়;
✓ ATM এর মাধ্যমে বিল পেমেন্ট করা যায়;
✓ ডেবিট কার্ডের অন্যান্য সকল সুবিধা পাওয়া যায়;
✓ ক্যাশলেস পেমেন্ট করা যায়;
✓ ই-কমার্স পেমেন্ট করা যায়;
✓ এটিএম বুথ থেকে Balance চেক করা যায়;
✓ লেনদেন সতর্কতা এসএমএস পাওয়া যায়;
✓ গ্রেট ডিসকাউন্ট, অফার এবং আকর্ষণীয় অন্যান্য সুবিধা পাওয়া যায়;
✓ কার্ড হারিয়ে গেলে দ্রুত নতুন কার্ড ইস্যু করা যায়;
✓ ২৪X৭ কন্ট্যাক্ট সেন্টার (১৬২৫৯) সেবা পাওয়া যায়;
✓ ২৪X৭X৩৬৫ দ্রুত, নিরাপদ এবং সুবিধাজনক ব্যাংকিং সেবা পাওয়া যায়;
✓ মার্চেন্ট আউটলেটে সহজেই অর্থ প্রদান করা যায়;
✓ হাসপাতাল/ চিকিত্সা বিল পেমেন্ট করা যায়;
✓ কমিউনিটি সেন্টার প্রোগ্রাম বিল পেমেন্ট করা যায়;
✓ বিমান টিকিট, হোটেল ফেয়ার ইত্যাদি বিল প্রদান করা যায়;
✓ জুয়েলারি ক্রয় করা যায়;
✓ ইলেকট্রনিক আইটেম এবং কম্পিউটার ক্রয় করা যায়;
✓ আসবাবপত্র, টাইলস, মার্বেল পাথর, নির্মাণ সামগ্রী ইত্যাদি ক্রয় করা যায়;
✓ নিজস্ব ব্যাংক ছাড়াও অন্য ব্যাংকের ATM বুথ থেকে টাকা তোলা যায়;
✓ শপিং, বিনোদন, ডাইনিং এবং ভ্রমণ ব্যয়ের জন্য বিশ্বব্যাপী ২৯ মিলিয়ন ভিসা মার্চেন্ট এ অ্যাক্সেস পাওয়া যায়;
✓ ব্রাঞ্চ POS এর মাধ্যমে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উত্তোলন করা যায়;
✓ যেকোনো অপারেটরে মোবাইল টপআপ করা যায়;
✓ ই-কমার্স ট্রানজেকশন (দেশ/ বিদেশ) করা যায়;
✓ VISA ছাড়াও OMNIBUS ও NPSB ATM নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে দ্রুত ATM সেবার সুবিধা পাওয়া যায়;
✓ প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১,০০,০০০ টাকা নগদ উত্তোলন করা যায়।

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ (A Platform for Bankers Community) প্রিয় পাঠকঃ ব্যাংকিং বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ এ লাইক দিন এবং ফেসবুক গ্রুপ ব্যাংকিং ফর অল এ জয়েন করে আমাদের সাথেই থাকুন।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ডের অন্যান্য সুবিধা
✓ এটিএম এর মাধ্যমে ১ দিনে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উত্তোলন।
✓ যেকোন আইবিবিএল শাখা থেকে কার্ডহােল্ডারের পাসপাের্ট এনডাের্স করতে হবে। এনডোর্সমেন্টের সময় উক্ত কার্ডটি সঙ্গে আনতে হবে।
✓ এনডাের্সকৃত কার্ডটি বিদেশ ভ্রমণকালীন সময় নগদ অর্থের পরিবর্তে ব্যবহার সতে পারবেন।
✓ ভিসা কার্ড বিশ্বব্যাপী যে সকল ছাড় দেয়, ডুয়েল কারেন্সি ডেবিট কার্ড ব্যবহারকারীরা ভ্রমণকালীন সময় সেই সকল সুবিধা ভােগ করতে পারবেন।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ডের লেনদেন সীমা
১. এটিএম বুথ থেকে দৈনিক নগদ টাকা উত্তোলন সীমা- ১,০০,০০০ টাকা (লেনদেন সংখ্যা- ৩০ বার)।
২. শাখা POS থেকে দৈনিক নগদ টাকা উত্তোলন সীমা- ১০,০০,০০০ টাকা (লেনদেন সংখ্যা- আনলিমিটেড)।
৩. দৈনিক ক্রয় সীমা (পিওএস ও ই-কমার্স)- ২,০০,০০০ টাকা (লেনদেন সংখ্যা- আনলিমিটেড)।
৪. ফান্ড ট্রান্সফার (আইবিবিএল এবং অন্যান্য ব্যাংক)- ২,০০,০০০ টাকা (লেনদেন সংখ্যা- ৫ বার)।

আইবিবিএল VISA ডুয়েল কারেন্সি গোল্ড ডেবিট কার্ডের ফি এবং চার্জ
১. কার্ড ইস্যু ফি- ফ্রি।
২. কার্ড নবায়ন ফি- ৫০০ টাকা।
৩. কার্ড-এর বার্ষিক ফি- ৫০০ টাকা।
৪. কার্ড রিপ্লেসমেন্ট ফি- ৫০০ টাকা।
৫. এটিএম ক্যাশ উত্তোলন ফি- ফ্রি (আইবিবিএল এটিএম/ সিআরএম)।
৬. এটিএম ক্যাশ উত্তোলন ফি (অন্যান্য নেটওয়ার্ক/ অন্য ব্যাংকের এটিএম বুথ)- ভিসা/ এনপিএসবি/ মাস্টার কার্ড/ অন্যান্য সার্ভিস প্রোভাইডারের সাথে চুক্তি অনুযায়ী প্রযোজ্য হবে (সাধারণত অন্যান্য ব্যাংকের এটিএম থেকে টাকা উত্তোলন ফি ১৫ টাকা হয়ে থাকে)।
৭. ফরেন ট্রানজেকশন ফি (এটিএম ক্যাশ উত্তোলন)- ট্রানজেকশন এমাউন্টের ২% + ১ ডলার।
৮. ফরেন ট্রানজেকশন ফি (কেনা-কাটা)- ট্রানজেকশন এমাউন্টের ১%।
৯. পিন রিপ্লেসমেন্ট/ রিসেট (গ্রীন পিন) ফি- ৫০ টাকা।
১০. কার্ড ক্লোজিং ফি- ২০০ টাকা।
১১. ব্যালেন্স অনুসন্ধান ফি- ফ্রি (আইবিবিএল এটিএম/ সিআরএম)।
১২. ব্যালেন্স অনুসন্ধান ফি- (অন্যান্য নেটওয়ার্ক/ অন্য ব্যাংকের এটিএম বুথ)- ভিসা/ এনপিএসবি/ মাস্টার কার্ড/ অন্যান্য সার্ভিস প্রোভাইডারের সাথে চুক্তি অনুযায়ী প্রযোজ্য হবে (সাধারণত ব্যালেন্স অনুসন্ধান ফি ৫ টাকা হয়ে থাকে)।
* এছাড়াও সরকারী নিয়ম অনুসারে ফি ও চার্জের সাথে ভ্যাট ও ট্যাক্স যুক্ত হবে।

এটিএম (ATM) Card Operation এর নিয়মাবলী
✓ মেশিনে ATM Card প্রবেশ করান।
✓ আপনার কার্ডের সঠিক গােপন (পিন নাম্বার মেশিনে প্রবেশ করান।
✓ মেনু পড়ুন এবং টাকা উঠানাের জন্য Cash Withdraw বাটনে চাপ দিন, এরপর টাকার পরিমাণ লিখে দিন, টাকার পরিমাণ লেখা সঠিক হলে Correct বাটনে চাপ দিন, টাকা দেওয়ার পর No বাটনে চাপ দিলে আপনার কার্ড ফেরত দিবে, সাথে সাথে কার্ড হাতে নিন।
✓ মেশিন হতে টাকা বের হলে টাকা হাতে নিন।
✓ মেশিন আপনার কার্ড ফেরত দিলে সাথে সাথে হাতে নিন, প্রয়ােজনে আবার কার্ড ব্যবহার করুন।
✓ ভুল গােপন (পিন) নাম্বার মেশিনে ব্যবহার করবেন না।
✓ ভুল পিন নাম্বার ব্যবহার করলে মেশিন কার্ড ফেরত দিবে না এবং আপনার সঠিক পিন বাতিল হয়ে যাবে।

কার্ড চুরি বা হারিয়ে গেলে করণীয়
যদি VISA কার্ড চুরি হয়ে যায় অথবা হারিয়ে যায়, তাহলে ব্যাংকের কল সেন্টার ১৬২৫৯ বা ৮৩৩১০৯০ এ ফোন করে চুরি হয়ে যাওয়া অথবা হারিয়ে যাওয়া কার্ড সম্পর্কে জানালে, ব্যাংক অফিসার আপনার কার্ডের লেনদেন বন্ধ করবেন। পরবর্তীতে নতুন কার্ড নিতে পারবেন।

কার্টেসিঃ মোহাম্মদ শামসুদ্দীন আকন্দ, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড।

বিস্তারিত জানতে
ব্যাংকের যেকোন শাখা/ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট/ বুথ ব্যাংকিংয়ে যোগাযোগ করুন
✆ কল সেন্টারঃ ১৬২৫৯ অথবা ৮৩৩১০৯০ (দেশ)/ ০০৮৮-০২-৮৩৩১০৯০ (বিদেশ) এ কল করুন
টেলিফোনঃ (০২) ৯৫৬৩০৪০ (অটো হান্টিং), ৯৫৬০০৯৯, ৯৫৬৭১৬১, ৯৫৬৭১৬২, ৯৫৬৯৪১৭
টেলেক্সঃ 642525 IBANK BJ, 632403 IBANK BJ, 671620 IBANK BJ
ফ্যাক্সঃ ৮৮০- ২- ৯৫৬৪৫৩২, ৮৮০- ২- ৯৫৬৮৬৩৪
সুইফটঃ IBBLBDDH
কেবলঃ ISLAMIBANK
ইমেইলঃ info@islamibankbd.com
ওয়েবসাইটঃ www.islamibankbd.com

Leave a Reply



লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যকে দেখার সুযোগ করে দিন:

এই বিভাগের অন্যান্য লেখা





ইমেইল সাবস্ক্রাইব করুন

আমাদের নতুন নতুন পোষ্ট গুলো ই-মেইল এর মাধ্যমে পেতে রেজিষ্ট্রেশন করুন।




আর্কাইভ



বিভাগ সমূহ