মাইক্রো ফাইন্যান্স কাকে বলে? মাইক্রো ফাইন্যান্স এর বৈশিষ্ট্য সমূহ

0
996

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ দারিদ্র বিমোচনের কথা বলে বাংলাদেশের বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা (NGO) ক্ষুদ্র ঋণের জমজমাট ব্যবসা করে আসছে। বাংলাদেশ হচ্ছে ক্ষুদ্র ঋণ কর্মসূচির চারণভূমি। ক্ষুদ্র ঋণ প্রদানে মাইলফলক হচ্ছে। বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ঋণ এর উদ্ভাবক ও ক্ষুদ্র ঋণের অগ্রদূত হচ্ছে বাংলাদেশ। এসব কথা শুনে গর্ব অনুভব হলেও বাংলাদেশে এখনো মোট জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ লোক দারিদ্র্য সীমার নিচে বাস করছে। অর্থনীতিবিদদের মতে এই ৬ কোটি লোকের মধ্যে ৩ কোটি হল “হতদরিদ্র বা চরম দরিদ্র”। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এস এম আকাশ এর মতে- বাংলাদেশে দরিদ্র বিষয়ক যত কর্মসূচি ও যত বরাদ্দ আছে সব একত্রে ব্যয় করলেও বিন্দুতে সিন্ধু সম। শত চেষ্টা সত্ত্বেও দারিদ্র ইস্পিত হারে কমছে না। বাংলাদেশে দারিদ্র্য নিরসনের বাস্তব প্রায়োগিক দিকটি এখন পর্যন্ত মূলতঃ ক্ষুদ্র ঋণ এর সাহায্যে কিভাবে দরিদ্রদের আয় বাড়ানো যায় তার সাথে সম্পৃক্ত।

Micro Finance (মাইক্রো ফাইন্যান্স)
সাম্প্রতিক বছর সমূহে ক্ষুদ্রঋণ যা ব্যাপক পরিসরে মাইক্রো ফাইন্যান্স (Micro Finance) নামে পরিচিতি লাভ করেছে। দারিদ্র্য দূরীকরণে একটি কার্যকর এবং অধিক গ্রহণযোগ্য কর্মসূচি হিসেবে স্বল্পোন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোতে এটি গৃহীত হয়েছে।মাইক্রোফিনান্স এর প্রাথমিকভাবে একটি সীমিত সংজ্ঞা ছিল। দরিদ্র উদ্যোক্তাদের মাইক্রো লোনের বিধান এবং ব্যাংকিং ও ব্যাংকিং সংশ্লিষ্ট সেবার অ্যাক্সেসের অভাবের কারনে ক্ষুদ্র লোনের উদ্ভব ঘটে। এই ধরনের ক্লায়েন্টদের আর্থিক সেবা প্রদানের জন্য দুটি প্রধান প্রক্রিয়া ছিল-
১) ব্যক্তিগত উদ্যোক্তাদের এবং ছোট ব্যবসাগুলির জন্য সম্পর্ক ভিত্তিক ব্যাংকিং; এবং
২) গ্রুপ ভিত্তিক মডেল, যেখানে বেশ কিছু উদ্যোক্তা একটি গ্রুপ হিসাবে ঋণ এবং অন্যান্য সেবার জন্য আবেদন করতো।

» মাইক্রো ফাইন্যান্স এর সংজ্ঞায় (Joanna Ledgerwood) জোয়ানা লেজারউড বলেন-
Microfinance has evolved as an economic development approach intended to benefit low-income women and men. The term refers to the provision of financial services to low-income clients, including the self-employed. Financial services generally include savings and credit.
অর্থাৎ মাইক্রো ফাইন্যান্স এমন একটি কর্মসূচি যা স্বল্প আয়ের মহিলা ও পুরুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য গৃহীত হয়। মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) বলতে বুঝায় স্বল্প আয়ের গ্রাহকদেরকে অর্থনৈতিক সেবা প্রদান করা যা আত্মকর্মসংস্থানে সহায়তা করে। অর্থনৈতিক সেবার মাধ্যমে সঞ্চয় গড়ে তোলা এবং ঋণ প্রদান অন্তর্ভুক্ত করা।

Features of Micro Finance (মাইক্রো ফাইন্যান্স এর বৈশিষ্ট্যসমূহ)
নিম্নে Micro Finance বা ক্ষুদ্র অর্থায়নের বৈশিষ্ট্য সমূহ তুলে ধরা হলো-
১. ক্ষুদ্র বিনিয়োগ বিশেষ করে চলতি মূলধন সরবরাহ
২. বিনিয়োগ গ্রহীতা ও বিনিয়োগের অনানুষ্ঠানিক মূল্যায়ন
৩. জামানতের বিকল্প হিসেবে গ্রুপ গ্যারান্টি বাধ্যতামূলক সঞ্চয় সৃষ্টি
৪. ঋণ ফেরত দেয়ার বাস্তবতার ওপর ভিত্তি করে ঋণের পুনরাবৃত্তি বিশেষ করে বর্ধিত আকারে ঋণ প্রদান-ঋণ প্রদান পারফরমেন্সের উপর ভিত্তি করে
৫. ঋণ প্রদান এবং নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও
৬. নিরাপদ সঞ্চয় গড়ে তোলা।

Objective of Micro Finance (মাইক্রো ফাইন্যান্স এর উদ্দেশ্য)
নিম্নে Micro Finance বা ক্ষুদ্র অর্থায়নের উদ্দেশ্য সমূহ তুলে ধরা হলো-
১. দরিদ্র নারী ও পুরুষদের সংগঠিত করা
২. তাদের আত্মবিশ্বাস সৃষ্টি করা
৩. অর্থনৈতিক স্বয়ংসম্পূর্ণতা ও
৪. ব্যবস্থাপনা দক্ষতা।

অতএব Micro Finance একাধারে অর্থনৈতিক এবং সামাজিক যুগপৎ উন্নয়নে গৃহীত কর্মসূচি।

Leave a Reply