বাণিজ্যিক ব্যাংক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মধ্যে পার্থক্য সমূহ

0
281

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও বাণিজ্যিক ব্যাংক ঋণ নিয়ে কারবার করে থাকে এবং দেশের উন্নয়নে ও উভয়ের ভূমিকাই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই দুই প্রকার প্রতিষ্ঠানের পদমর্যাদা, সংগঠন ও কার্যাবলীতে মৌলিক পার্থক্য রয়েছে। নিম্নে বাণিজ্যিক ব্যাংক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মধ্যে পার্থক্যসমূহ তুলে ধরা হলো-

১) Formation (গঠন)
বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশের কোম্পানি ও ব্যাংকিং আইন অনুযায়ী গঠন করা হয়ে থাকে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকারের বিশেষ আইনের মাধ্যমে গঠন করা হয়ে থাকে।
২) Objectives (উদ্দেশ্য)
বাণিজ্যিক ব্যাংকের উদ্দেশ্য হচ্ছে ঋণের ব্যবসার মাধ্যমে মুনাফা অর্জন করা।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের ব্যাংকিং ব্যবসা এবং মুদ্রা বাজারের অভিভাবক হিসেবে সামগ্রিক স্বার্থে কাজ করে।
৩) Receiving Deposit (আমানত গ্রহণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংক জনগণের নিকট হতে বিভিন্ন হিসাবের মাধ্যমে আমানত গ্রহণ করে থাকে।
কিন্তু কেন্দ্রীয় ব্যাংক জনগণের নিকট হতে কোন প্রকার আমানত গ্রহণ করে না।
৪) Members (সদস্য)
বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশের মুদ্রা বাজারের সদস্য হিসেবে কাজ করে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের মুদ্রা বাজারের অভিভাবক হিসেবে কাজ করে থাকে।
৫) Controls (নিয়ন্ত্রণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে।
৬) Ownership (মালিকানা)
বাণিজ্যিক ব্যাংক সরকারি, বেসরকারি ও সরকারি-বেসরকারি মালিকানায় হয়ে থাকে।
অপর পক্ষে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকারি মালিকানায় হয়ে থাকে।
৭) Number (সংখ্যা)
একটি দেশে একাধিক বাণিজ্যিক ব্যাংক থাকে বা থাকতে পারে।
অপরদিকে একটি দেশে একটি মাত্র কেন্দ্রীয় ব্যাংক থাকে।
৮) Branches (শাখা)
বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশে-বিদেশে শাখা খুলে থাকে বা খুলতে পারে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের ভেতর শাখা খুলতে পারে কিন্তু বিদেশে কোন শাখা খুলতে পারে না।
৯) Representation (প্রতিনিধিত্ব)
বাণিজ্যিক ব্যাংক গ্রাহক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকারের ব্যাংক হিসেবে কাজ করে।
১০) Circulation of notes (নোট প্রচলন)
বাণিজ্যিক ব্যাংক নোট ও মুদ্রার প্রচারে সাহায্য করে থাকে।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এককভাবে দেশে নোট প্রচলন করে থাকে।
১১) Giving loan (ঋণদান)
বিভিন্ন ব্যক্তিগত খাতসমূহে বাণিজ্যিক ব্যাংক ঋণ প্রদান করে থাকে।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকার ও অন্যান্য ব্যাংকসমূহকে ঋণ প্রদান করে থাকে।
১২) Credit control (ঋণ নিয়ন্ত্রণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংককে ঋণ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক মুদ্রা বাজারের অভিভাবক হিসেবে ঋণ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।
১৩) Clearing house (নিকাশ ঘর)
বাণিজ্যিক ব্যাংক নিকাশ ঘর পরিচালনা করার ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে সহায়তা করে থাকে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিভিন্ন ব্যাংকের পারস্পরিক লেনদেন নিষ্পত্তির জন্য নিকাশ ঘর পরিচালনা করে থাকে।
১৪) Foreign exchange (বৈদেশিক মুদ্রা)
বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমতি সাপেক্ষে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন করে থাকে।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বৈদেশিক মুদ্রার নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করে থাকে।
১৫) Advisor (উপদেষ্টা)
বাণিজ্যিক ব্যাংক গ্রাহকদের উপদেষ্টা ও তথ্য সরবরাহকারী হিসেবে কাজ করে থাকে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকারের উপদেষ্টা ও তথ্য সরবরাহকারী হিসেবে কাজ করে থাকে।
১৬) Government’s bank (সরকারের ব্যাংক)
বাণিজ্যিক ব্যাংক গ্রাহক ও জনগণের ব্যাংক হিসেবে কাজ করে থাকে।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকার ও জনগণের ব্যাংক হিসেবে কাজ করে থাকে।
১৭) Submit the account (হিসাব দাখিল)
বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট প্রতি সপ্তাহে বাধ্যতামূলক বিভিন্ন হিসাব বিবরণী পেশ করে থাকে।
অন্যদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সপ্তাহ ও আর্থিক বছরের শেষে হিসাব বিবরণী সরকারি নিকট পেশ করে থাকে।

১৮) Existence and entity (অস্তিত্ব ও সত্তা)
বাণিজ্যিক ব্যাংকের অস্তিত্ব ও সত্তা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তুলনায় দুর্বল হয়ে থাকে।
অপরদিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অস্তিত্ব ও সত্তা সরকারের বিশেষ আইনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয় বলে শক্তিশালী হয়ে থাকে।

Leave a Reply