বাংলাদেশে মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) কার্যক্রমে সাফল্য

0
181

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ বাংলাদেশে মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) কার্যক্রমে অতুলনীয় সাফল্য বিশ্ববাসীকে অবাক করে দিয়েছে। বাংলাদেশ আজ ল্যান্ড অব মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) হিসেবে অত্যন্ত সুপরিচিত। যে দারিদ্র, ক্ষুধা, বেকারত্ব এদেশের কোটি কোটি মানুষের ভাগ্য বিড়ম্বিত, হতাশাগ্রস্থ, গন্তব্যহীন, অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দিয়েছিল, সে অনিশ্চিত ভবিষ্যত জীবনযাত্রার পথ রোধ করে সম্ভাবনাময় উজ্জ্বল ভবিষ্যত পথের সন্ধান দিয়েছে MFI বা মাইক্রো ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠান সমূহ। বাংলাদেশেই দরিদ্র মানুষদের সেবা আর্থিক সেবা খাতে দরিদ্র বান্ধব অনন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে MFI বা মাইক্রো ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠান সমূহ সারা বিশ্বে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। দরিদ্রদের কার্যকর ও টেকসইভাবে আর্থিক সেবা দানে সনাতন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান সমূহের ব্যর্থতার জন্যই বাংলাদেশে MFI বা মাইক্রো ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠানের উদ্ভব হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ নোবেল বিজয়ী ডঃ মুহাম্মদ ইউনূসের মস্তিষ্ক প্রসূত ক্ষুদ্র ঋণ মডেল বাস্তবায়িত হচ্ছে সমগ্র বিশ্বে। ২০১৫ সালের মধ্যে বিদ্যমান অতি দারিদ্র্য (Hardcore Poverty) এর মাত্রা অর্ধেকে কমিয়ে আনার লক্ষ্যে জাতিসংঘ ২০০৫ সালকে জাতিসংঘ ক্ষুদ্র ঋণ বর্ষ ঘোষণা করেছিল। সমগ্র ক্ষুধা দারিদ্র্যের প্রতিষেধক হিসেবে বাংলাদেশের ক্ষুদ্র ঋণ গ্রহণ করেছে যা বাংলাদেশের জন্য গৌরব ও সম্মানের বিষয়। বর্তমানে বাংলাদেশে মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) গ্রহীতার সংখ্যা প্রায় ১ কোটি। বাংলাদেশে মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) বিতরণের যেসব MFI বা মাইক্রো ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠান শীর্ষে রয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম শীর্ষ স্থান দখলকারী প্রতিষ্ঠান হচ্ছে ব্রাক, আশা, প্রশিকা, ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘ (TMSS), গ্রামীণ ব্যাংক, পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ), পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন এবং বিভিন্ন সরকারি, বাণিজ্যিক ও তফসিলভুক্ত ব্যাংক এবং ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড এর RDS, আমওয়াব, মুসলিম এইড (UK) বাংলাদেশ ইত্যাদি।

পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর মাধ্যমে মাইক্রো ফাইন্যান্স (MF) বিতরণের লক্ষ্যে সরকার ১০০ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠন করেছে। দরিদ্রদের আয় বৃদ্ধি, সম্পদ অর্জন ও মজুরী বর্ধনে মাইক্রো ফাইন্যান্স এর বিশেষ ইতিবাচক ভূমিকা রয়েছে। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড এর পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প (RDS) অর্থনৈতিক উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে অন্যান্য বিষয় যেমন- নৈতিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধ, পরিবার ও সমাজের প্রতি দায়িত্ববোধ প্রভৃতির উন্নয়ন সাধন করে। নৈতিক শিক্ষার পাশাপাশি নিরক্ষরতা দূরীকরণে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। MFI বা মাইক্রো ফাইন্যান্স প্রতিষ্ঠান উন্নয়নকে গরীব মানুষের সঙ্গে সম্পৃক্ত করে দেখে থাকে। গরীব মানুষের আয় ও সম্পদ বৃদ্ধির নামই উন্নয়ন।

Leave a Reply