১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমান নােটের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য

0
256

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতি সম্বলিত ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমানের নােট লেনদেনের সময় নিম্নবর্ণিত ৪টি নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য খেয়াল করলে আমরা সহজেই আসল নােট চিনতে পারবঃ

০১। নিরাপত্তা সুতা
১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমান নোটের নিরাপত্তা সুতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের লােগো এবং নােটের মূল্যমান মুদ্রিত আছে যা নােট এদিক-ওদিক (Tilt) করলে দেখা যাবে। জুন, ২০১৭ হতে প্রচলিত ১০০ ও ৫০০ টাকা মূল্যমান নােটও এদিক-ওদিক করলে চুলের বেনী সদৃশ নিরাপত্তা সুতার একটি অংশ (Band) লাল হতে সবুজ রংয়ে পরিবর্তন হবে এবং অপরটির সম্পূর্ণ অংশে বাংলায় লেখা নোটের মূল্যমান দেখা যাবে। সাধারণ আলোয় নোটের মূল্যমান আংশিক দেখা গেলেও টেবিল ল্যাম্প কিংবা টর্চ লাইটের নীচে নােট ধরলে পুরো Band জুড়ে মূল্যমান দেখা যাবে।

০২। রং পৱিবৰ্তনশীল কালি
১০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমান নােট এদিক-ওদিক করলে রং পরিবর্তনশীল কালিতে মুদ্রিত অংশ সােনালী হতে সবুজ এবং ৫০০ টাকা মূল্যমান নোটে এটি লালচে হয়ে সবুজ হবে। তাছাড়া, ১০০০ টাকা মূল্যমান নােটর পেছনে বামদিকে থাকা হালকা নীল রংয়ের BANGLADESH BANK লেখাটিও নোট এদিক-ওদিক করে দেখা যাবে।

০৩। অসমতল ছাপা
১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমানের প্রত্যেক প্রকার নোটের সামনের ও পেছনের পিঠে ডিজাইন, মাঝখানের লেখা, ইংরেজী ও বাংলা সংখ্যায় লেখা নােটের মূল্যমান, ৭টি সমান্তরাল হেলানাে সরলরেখা এবং এর ঠিক নীচে অবস্থিত ছোট ছোট বৃত্তাকার ছাপ খসখসে অনুভূত হবে।

০৪। অতি সূক্ষ্ম আকারের লেখা
১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকা মূল্যমান নােটের পেছনের পিঠের ডিম্বাঙ্কিত অংশে অতি সূক্ষ্ম আকারে BANGLADESH BANK লেখাগুলো আতশী কাঁচ ছাড়াও উন্নতমানের স্মার্ট মােবাইল ফোনের ক্যামেরা প্রয়ােজন মত জুম করে কিংবা “Flashlight & magnifying glass” App এর সহায়তায় নিচে প্রদর্শিত অংশগুলাের উপর মােবাইল ফোন ধরে দেখা যাবে।

* UV লাইটযুক্ত জালনােট সনাক্তকারী মেশিন ও মােবাইল ফোন এবং আতশী কাঁচ দ্বারাও জালনােট সহজে পরীক্ষা করা যায়।
* নােট জালকারীচক্রের প্রতারণা থেকে নিজেকে রক্ষা করুন এবং এসকল নােট জালকারীকে ধরিয়ে দিন। আসল নােটের বিভিন্ন নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে নিজে জানুন এবং অপরকে জানতে সহায়তা করুন।
* ব্যাংকনােটের ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন হােন।
প্রচারে: বাংলাদেশ ব্যাংক।

Leave a Reply