১৫ দিনে রেমিট্যান্সে রেকর্ড

0
588

নতুন বছরের শুরুতে একটি সুখবর দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বছরের প্রথম ১৫ দিনে প্রবাসীদের পাঠানো আয়ে (রেমিট্যান্স) বড় ধরনের সাফল্য এসেছে।

১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ৯৫ কোটি ৭০ লাখ ডলার (৯৫৭ মিলিয়ন), বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী যা আট হাজার ৩৮ কোটি টাকা। পক্ষকাল সময়ে এ পরিমাণ রেমিট্যান্স প্রবাহ বাংলাদেশের ইতিহাসে আর কখনও হয়নি। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ২০১৯ সালে বিভিন্ন দেশ থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলে এক হাজার ৮৩৩ কোটি ডলারের সমপরিমাণ রেমিট্যান্স আসে, যা ২০১৮ সালের তুলনায় ২৭৮ কোটি ডলার অর্থাৎ ১৭ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেশি।

অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, রেকর্ড পরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে আসার নেপথ্যে নগদ প্রণোদনা ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে। বৈধ পথে (ব্যাকিং চ্যানেল) রেমিট্যান্স পাঠাতে চলতি অর্থবছরের বাজেটে ২ শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়, যা গত জুলাই থেকে কার্যকর হয়েছে। সেই থেকে রেমিট্যান্স প্রবাহ আগের চেয়ে বেড়েছে। একসঙ্গে এক হাজার ৫০০ ডলার পর্যন্ত দেশে পাঠালে কোনো প্রশ্ন ছাড়াই প্রণোদনার অর্থ সুবিধাভোগীরা পাবেন।

অর্থমন্ত্রী সম্প্রতি সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, প্রণোদনা দেওয়ার ফলে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহী হচ্ছেন প্রবাসীরা। এর ফলে চলতি বছর রেমিট্যান্স আসায় রেকর্ড হবে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রণোদনার অর্থ পরিশোধের জন্য চলতি অর্থবছরের বাজেটে তিন হাজার ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে সরকার। এর মধ্যে অর্ধেক টাকা ছাড় করা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, সরকারের দূরদর্শী সিদ্ধান্তের কারণে অনেকে এখন ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থ পাঠাতে আকৃষ্ট হচ্ছেন। আগামীতেও রেমিট্যান্স বৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply