অদাবীকৃত আমানত বা মূল্যবান সামগ্রী ফেরত প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি

0
276

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ (২০১৩ পর্যন্ত সংশোধিত) এর ৩৫ ধারায় ব্যাংকসমূহের অদাবীকৃত আমানত এবং মূল্যবান সামগ্রী সরকারি খাতে জমা করণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা প্রদান করার নির্দেশনা রয়েছে। উক্ত আইন অনুযায়ী কোন ব্যাংক কেম্পানীর কোন বাংলাদেশী শাখায় পরিশোধযোগ্য অর্থের (সরকার, নাবালক বা আদালতের অর্থ ব্যতীত) ব্যাপারে ১০ (দশ) বছর পর্যন্ত লেনদেন বা যোগাযোগ করা না হলে সে ধরনের অর্থ, চেক, ড্রাফট বা বিনিময় দলিলের পাওনাদার বা পাওনাদারের পক্ষে কোন ব্যক্তিকে এবং মূল্যবান সামগ্রীর আমানতকারীকে ৩ (তিন) মাসের নোটিশ প্রেরণের বিধান রাখা হয়েছে। উল্লিখিত নোটিশ প্রেরণের ৩ (তিন) মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও যদি তার প্রাপ্তি স্বীকার পত্র বা কোন উত্তর না আসে, সেক্ষেত্রে নিয়মানুযায়ী অদাবীকৃত আমানত এবং মূল্যবান সামগ্রী সরকারী খাতে জমা করণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রদান করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। নিম্নে অদাবীকৃত আমানত বা মূল্যবান সামগ্রী ফেরত প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদির তালিকা তুলে ধরা হলো-

ক) গ্রাহকের আবেদনপত্র (গ্রাহকের ঠিকানা এবং যোগাযোগের নং সমন্বিত) যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক শাখার কর্মকর্তা দ্বারা প্রত্যায়িত হবে;

খ) গ্রাহকের জাতীয় পরিচয় পত্র যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক শাখার কর্মকর্তা দ্বারা প্রত্যায়িত হবে;

গ) ব্যাংক কর্তৃক বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিস (দেশীয় মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) এবং ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে (বৈদেশিক মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) জমাকরণের সময় প্রেরিত আবেদনপত্রের কপি;

ঘ) ব্যাংক কর্তৃক বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিস (দেশীয় মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) এবং ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে (বৈদেশিক মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) জমাকরণের সময়ে পরিশিষ্ট-ক, পরিশিষ্ট-খ এবং পরিশিষ্ট-গ মোতাবেক প্রেরিত বিবরণীতে সংশ্লিষ্ট গ্রাহকের তথ্যাদি সমন্বিত পৃষ্ঠার কপি;

ঙ) ব্যাংক কর্তৃক বাংলাদেশ ব্যাংক, মতিঝিল অফিস (দেশীয় মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) এবং ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টে (বৈদেশিক মুদ্রার আমানত ও মূল্যবান সামগ্রীর জন্য) জমাকরণের জন্য প্রেরিত চেক/পে-অর্ডারের ফটোকপি বা মূল্যবান সামগ্রী জমাদানের রশিদ;

চ) মৃত গ্রাহকের ক্ষেত্রে তার মৃত্যু সনদ জমা প্রদান করতে হবে এবং সেক্ষেত্রে অদাবীকৃত আমানত বা মূল্যবান সামগ্রী ফেরত প্রদানের জন্য নমিনী/নমিনীগণ বা নমিনী মনোনয়ন করা না থাকলে উত্তরাধিকার সনদ অনুযায়ী উপযুক্ত উত্তরাধিকারী/ উত্তরাধিকারীগণ ব্যাংকে আবেদন করার আবেদনের কপি। এক্ষেত্রে নমিনী/উত্তরাধিকারীদের জাতীয় পরিচয় পত্র এবং তৎসংশ্লিষ্ট কাগজপত্রাদি (যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক শাখার কর্মকর্তা দ্বারা প্রত্যায়িত হবে) জমা প্রদান করতে হবে।

• এ সংক্রান্ত সার্কুলারটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

সূত্রঃ ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক
বিআরপিডি সার্কুলার লেটার নং-১০/২০১৮, তারিখঃ ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

Leave a Reply