৪ ব্যাংকে পরিচালকদের মালিকানা কমেছে

0

দেশের শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত ৪ ব্যাংকের পরিচালকরা গত এক মাসে শেয়ার বিক্রি করে দিয়ে নিজেদের মালিকানা কমিয়েছেন। ব্যাংকগুলোর পরিচালকরা গত এক মাসে নিজেদের মালিকানা কমিয়েছেন ০.১০ শতাংশেরও বেশি। এই ৪ ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে আল আরাফাহ ইসলামি ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড এবং এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড।

আল আরাফাহ ইসলামিক লিমিটেড
গত এক মাসে ব্যাংকটির পরিচালকরা বাজারে ৪.৪৮ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা কমেছে ৪.৪৮ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা ছিলো ৪১.৮৭ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে পরিচালকদের মালিকানা ৪.৪৮ শতাংশ কমে অবস্থান করছে ৩৭.৩৯ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৭ টাকা ১০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ১১.৬৮ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়েছে। সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ১ টাকা ১৬ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ৮৪ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ০১ পয়সায়।

ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড
গত এক মাসে ব্যাংকটির পরিচালকরা বাজারে ২ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা কমেছে ২ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা ছিলো ৮৬.৯৯ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে ব্যাংকটির পরিচালকদের মালিকানা ২ শতাংশ কমে অবস্থান করছে ৮৪.৯৯ শতাংশে।

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ (A Platform for Bankers Community) প্রিয় পাঠকঃ ব্যাংকিং বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ এ লাইক দিন এবং ফেসবুক গ্রুপ ব্যাংকিং ফর অল এ জয়েন করে আমাদের সাথেই থাকুন।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮০ টাকা ২০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ১১.২৩ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ১৫ শতাংশ বোনাস ডিভিডেন্ড দিয়েছে। সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ৩ টাকা ৫৭ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ৩ টাকা ৪২ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৫৩ টাকা ১৫ পয়সায়।

এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড
গত এক মাসে ব্যাংকটির পরিচালকরা ০.১২ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা কমেছে ০.১২ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা ছিলো ৩৭.৮৯ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে ব্যাংকটির পরিচালকদের মালিকানা ০.১২ শতাংশ কমে অবস্থান করছে ৩৭.৭৭ শতাংশে।

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১২ টাকা ৮০ পয়সায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৭.১৯ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ৭.৫ শতাংশ ক্যাশ এবং ৭.৫ শতাংশ বোনাস ডিভিডেন্ড দিয়েছে। সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ৮৯ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ১ টাকা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৫৫ পয়সায়।

মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড
গত এক মাসে ব্যাংকটির পরিচালকরা ০.২০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেছে। এতে করে গত এক মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা কমেছে ০.২০ শতাংশ। আগস্ট মাসে ব্যাংকটিতে পরিচালকদের মালিকানা ছিলো ৩৬.৯৮ শতাংশ। সেপ্টেম্বর মাসে ব্যাংকটির পরিচালকদের মালিকানা ০.২০ শতাংশ কমে অবস্থান করছে ৩৬.৭৮ শতাংশে।

আরও দেখুন:
◾ আগামীকাল বুধবার ব্যাংক বন্ধ থাকবে

সর্বশেষ ব্যাংকটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১৬ টাকায়। সর্বশেষ শেয়ার দর অনুযায়ী ব্যাংকটির পিই রেশিও অবস্থান করছে ৩.৯৬ পয়েন্টে। সর্বশেষ ২০২০ সালে ব্যাংকটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ ক্যাশ এবং ৫ শতাংশ বোনাস ডিভিডেন্ড দিয়েছে। সর্বশেষ দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন’২১) ছয় মাসে ব্যাংকটি শেয়ার প্রতি আয় দেখিয়েছে ২ টাকা ০২ পয়সা। আগের বছর শেয়ার প্রতি আয় ছিলো ৯৭ পয়সা। আলোচ্য সময়ে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৬১ পয়সায়।

সোর্সঃ আমারস্টক

Leave a Reply