ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (NPSB)

0
2276

সবার জন্য সহজ ব্যাংকিং এই উদ্দেশ্যে ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (NPSB) ব্যবস্থা ব্যাংকিং সেবায় অনলাইন বা ইলেকট্রনিক লেনদেনের আন্তঃ প্রতিযোগিতার বাজারে নতুন সেবা প্রদান এবং গ্রাহকদের মাঝে ব্যাপকভাবে ইলেকট্রনিক পেমেন্ট সিস্টেমের ধারণা ছড়িয়ে দিচ্ছে এবং জনগণ এর সুফল ও পাচ্ছে।

অটোমেটেড টেলার মেশিন (ATM), পয়েন্ট অফ সেলস (POS) মেশিন, ইন্টারনেট ব্যাংকিং ব্যবস্থা, মোবাইল ব্যাংকিং সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মাধ্যমে প্রচলিত অর্থ লেনদেনের ব্যবস্থাসমূহকে একটি স্বতন্ত্র কাঠামোর মাঝে নিয়ে এসে আন্তঃ ব্যাংকিং লেনদেনে আরও স্বচ্ছতা, দ্রুততা এবং ব্যয় সংকোচনের লক্ষ্যে, বাংলাদেশ ব্যাংক ২০১২ সালে ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (NPSB)’র সুবিধা চালু করে।

সকল ধরনের ইলেকট্রনিক অর্থ লেনদেনের সুবিধাকে একটি প্ল্যাটফর্মে এনে ই-কমার্স এবং কার্ড এর মাধ্যমে লেনদেনকে উৎসাহিত করতে মূলত এনপিএসবি কাজ করছে। বর্তমানে ৫১টি ব্যাংক এবং আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান এনপিএসবি নেটওয়ার্কের আওতায় বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

Benefits of NPSB Banks (এনপিএসবি ব্যাংকের সুবিধা)
বর্তমানে গ্রাহকেরা এনপিএসবি এর মাধ্যমে নীচের সুবিধা গুলো পাচ্ছেঃ
• এটিএম এর মাধ্যমে ক্যাশ উঠানো/টাকা তোলা। (প্রতি লেনদেন- ১৫ টাকা)
• এটিএম এর ব্যালেন্স জানা/স্থিতি অনুসন্ধান (প্রতি লেনদেন- ৫ টাকা)
• এটিএম এর খুদে বিবরণী জানা (প্রতি লেনদেন- ৫ টাকা)
• পস মেশিনের মাধ্যমে কেনা-কাটা (ফ্রি)
• ইন্টারনেট ব্যাংকিং (ফ্রি)
• মোবাইল ব্যাংকিং (আসছে)।

General Information (সাধারণ তথ্যাবলী)

বিবরণ ২০১৮
ডেবিট কার্ড সংখ্যা ১৪০৪৪৩৩৮
ক্রেডিট কার্ড সংখ্যা ১০৭৫২৫০
প্রিপেইড কার্ড সংখ্যা ১৯১৯৮১
এটিএম বুথ সংখ্যা ১০১৮০
পিওএস টার্মিনাল সংখ্যা ৪৪৬৫৪
NPSB প্রত্যয়িত এটিএম ট্রান্স. এর জন্য ব্যাংক ৫১টি ব্যাংক
NPSB প্রত্যয়িত পিওএস ট্রান্স. এর জন্য ব্যাংক ৫০টি ব্যাংক
NPSB প্রত্যয়িত IBFT ট্রান্স. এর জন্য ব্যাংক ১৯টি ব্যাংক

NPSB member Banks in Bangladesh (বাংলাদেশে এনপিএসবি সদস্য ব্যাংক)
নিম্নে বাংলাদেশে এনপিএসবি সদস্য ব্যাংক সমূহের তালিকা তুলে ধরা হলো-
১. এবি ব্যাংক লিমিটেড
২. অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড
৩. আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৪. বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক
৫. বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক
৬. ব্যাংক আল-ফালাহ লিমিটেড
৭. ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড
৮. বেসিক ব্যাংক লিমিটেড
৯. ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড
১০. কমার্সিয়াল ব্যাংক অব সিলন
১১. ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড
১২. ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড
১৩. ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড
১৪. এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড
১৫. ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
১৬. হাবিব ব্যাংক লিমিটেড
১৭. এইচএসবিসি
১৮. আইসিবি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
১৯. আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড
২০. ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড
২১. যমুনা ব্যাংক লিমিটেড
২২. জনতা ব্যাংক লিমিটেড
২৩. মেঘনা ব্যাংক লিমিটেড
২৪. মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড
২৫. মিডল্যান্ড ব্যাংক লিমিটেড
২৬. মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড
২৭. মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড
২৮. ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড
২৯. এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড
৩০. এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড
৩১. এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড
৩২. এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেড
৩৩. ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড
৩৪. প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড
৩৫. পুবালী ব্যাংক লিমিটেড
৩৬. এসবিএসি ব্যাংক লিমিটেড
৩৭. শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৩৮. সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৩৯. সোনালী ব্যাংক
৪০. সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড
৪১. স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড
৪২. স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক লিমিটেড
৪৩. সিটি ব্যাংক লিমিটেড
৪৪. ষ্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া
৪৫. ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড
৪৬. ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড
৪৭. ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড এবং
৪৮. উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড
৪৯. উরি ব্যাংক।

Leave a Reply