খেলাপী ঋণ গ্রহীতা এবং খেলাপী ঋণ গ্রহীতার অনুকূলে ঋণসুবিধা প্রদান

0
667

ব্যাংক কোম্পানী আইন-১৯৯১ এর ৫(গগ) ধারায় প্রদত্ত সংজ্ঞার মর্মার্থ অনুযায়ী “খেলাপী ঋণ গ্রহীতা” অর্থ কোন দেনাদার ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানী যার নিজের বা স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের (নীচে ব্যাখ্যা দেয়া আছে) অনুকূলে প্রদত্ত অগ্রীম, ঋণ বা অন্য কোনো আর্থিক সুবিধা বা তার অংশ বা তার উপর অর্জিত সুদ বা মুনাফা যা Repay করার সমসীমা (Due Date) ৬ মাস বা তদুর্ধ সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও আংশিক বা সম্পূর্ণ অপরিশোধিত আছে।

অধিকতর ব্যাখ্যা
(১) যদি কোনো চলমান ঋণ [Continuous Loan যেমন CC (Hypo) বা OD (Overdraft) সুবিধা ইত্যাদি] পরিশোধের মেয়াদ অতিক্রান্ত (Expire) হওয়ার পরও ৬ (ছয়) মাস বা তদুর্ধ সময় ধরে আংশিক বা সম্পূর্ণ অপরিশোধিত থাকে; অথবা
(২) যদি কোনো তলবী ঋণ [Demand Loan যেমন LTR, RSTL সুবিধা ইত্যাদি] পরিশোধের মেয়াদ অতিক্রান্ত (Expire) হওয়ার পরও ৬ (ছয়) মাস বা তদুর্ধ সময় ধরে আংশিক বা সম্পূর্ণ অপরিশোধিত থাকে; অথবা
(৩) যদি কোনো মেয়াদী ঋণ পরিশোধের মেয়াদ অতিক্রান্ত (Expire) হওয়ার পরও ৬ (ছয়) মাস বা তদুর্ধ সময় ধরে আংশিক বা সম্পূর্ণ অপরিশোধিত থাকে অথবা এখনো মেয়াদ আছে কিন্তু ৬ (ছয়) টি কিস্তি বা তার সমপরিমাণ অর্থ Overdue হয়ে গেছে; —তাহলে উক্ত ঋণহিসাবকে খেলাপী ঋণ ধরা হবে।

স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বলতে কি বুঝাবে
যদি কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানী-
(১) অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের পরিচালক (Director) হন; অথবা
(২) উক্ত প্রতিষ্ঠানে তার শেয়ার ২০% এর অধিক হয়; অথবা
(৩) উক্ত প্রতিষ্ঠানের ঋণের বিপরীতে যদি জামিনদার হন, তাহলে উক্ত প্রতিষ্ঠান তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বলে গণ্য হবে।

অর্থাৎ আপনি [বা কোনো একটি প্রতিষ্ঠান] অপর কোনো ঋণখেলাপী কোম্পানীর পরিচালক, সেক্ষেত্রে ওই ঋণখেলাপী প্রতিষ্ঠানে আপনার শেয়ার হোল্ডিং যাই হোক না কেন বা ওই প্রতিষ্ঠানের ঋণের বিপরীতে আপনি জামিনদার না হলেও, আপনি ঋণখেলাপী বিবেচিত হবেন। আবার আপনি পরিচালক নন বা জামিনদারও নন কিন্তু ঋণখেলাপী প্রতিষ্ঠানে আপনার শেয়ার হোল্ডিং ২০% এর বেশী, তাহলেও আপনি ঋণখেলাপী বিবেচিত হবেন। আবার আপনি ঋণখেলাপী প্রতিষ্ঠানের পরিচালকও নন আবার আপনার শেয়ার হোল্ডিংও নেই, কিন্তু ঋণের বিপরীতে আপনি জামিনদার, তাহলেও আপনি ঋণখেলাপী বিবেচিত হবেন

খেলাপী ঋণ গ্রহীতার অনুকূলে ঋণসুবিধা প্রদান
ব্যাংক কোম্পানী আইন-১৯৯১ এর ২৭কক(৩) ধারা অনুযায়ী কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান কোনো খেলাপী ঋণগ্রহীতার অনুকূলে কোনোরূপ ঋণসুবিধা (Funded or Non Funded) প্রদান করতে পারবে না।

একটি ট্রিকি প্রশ্ন করি। ধরুন, একটি চলমান ঋণ আপনি পুনঃতফসিল করেছেন। কিন্তু ঋণগ্রহীতা পরপর তিনটি কিস্তি মিস করেছেন, কাজেই বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার অনুযায়ী ঋণহিসাবটি মন্দ ও ক্ষতিজনক (BL) মানে শ্রেণীকৃত হয়ছে। প্রশ্ন হচ্ছে এই গ্রাহক যদি নতুন ঋণ পাওয়ার জন্য পুনঃতফসিলীকৃত অংকের ১৫% ডাউন পেমেন্ট জমা দেন, আপনি তাকে নতুন ঋণসুবিধা দিতে পারবেন কিনা?

কার্টেসিঃ Mybank Bd

Leave a Reply