ইসলামী ব্যাংক ক্যাশ রিসাইক্লিং মেশিন (CRM)

0

ব্যাংকে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে টাকা তােলার ভােগান্তি কমাতে ২৬ বছর আগে দেশে চালু হয়েছিল অটোমেটেড টেলার মেশিন (এটিএম বুথ)। প্রায় আট বছর আগে চালু করা হয় টাকা জমা নেওয়ার মেশিন, যা ক্যাশ ডিপােজিট মেশিন (সিডিএম) নামে পরিচিত। তবে এ মেশিনের মাধ্যমে গ্রাহকের হিসাবে তাৎক্ষণিক টাকা জমা হয় না। এখন টাকা জমা ও উত্তোলনের উভয় সুবিধা সম্পন্ন মেশিনও চালু হয়েছে। উন্নত প্রযুক্তির এ মেশিনের নাম সিআরএম বা ক্যাশ রিসাইকেলার মেশিন বা ক্যাশ রিসাইক্লিং মেশিন; অর্থাৎ ব্যাংকে না গিয়ে এখন রাত-দিন ২৪ ঘণ্টাই এখানে টাকা জমা ও উত্তোলন দু-ই করতে পারছেন গ্রাহকরা। যা ব্যাংকের সঙ্গে গ্রাহকের তাৎক্ষণিক লেনদেনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। সিআরএম বুথ ব্যাংকের ক্যাশিয়ারের ভূমিকা পালন করছে।

নির্দিষ্ট মূল্যমানের নােট গুনে নেওয়ার পাশাপাশি সেগুলাে ছেড়া, ময়লা, আসল না জাল সেটিও যাচাই করছে। নির্দিষ্ট মূল্যমানের নিচের নােট জমা দিলে সেটিও ফেরত দিচ্ছে। এ প্রযুক্তির মেশিনে সব ধরনের ইউটিলিটি বিল পরিশােধ ও অর্থ স্থানান্তরের সুবিধাও চালু হয়েছে। দেশে বর্তমানে পাঁচটি ব্যাংক ইউসিবি, সাউথইষ্ট, সিটি ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ও ইস্টার্ন ব্যাংক সিআরএম বুথ বসিয়েছে। এসব বুথে গ্রাহকদের ব্যাপক সাড়া মিলছে এবং লেনদেনের পরিমাণ প্রতিদিনই বাড়ছে।

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড আধুনিক গ্রাহক সেবায় সিআরএম সংযোজন শুরু করেছে। অতি অল্প সময়ের মধ্যেই মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সিআরএম প্রযুক্তির এটিএম বুথ। তাই পর্যায়ক্রমে এটি বিভাগ, জেলা পর্যায়ের পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়েও ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের; যাতে মানুষ ব্যাংকিং সেবার প্রতি আগ্রহী হয়ে ওঠে। এটা আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতেও ভূমিকা রাখছে।

প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় মানুষের জীবনযাত্রার মান আগের চেয়ে সহজ হয়েছে। সিআরএম বুথে মানুষ এখন টাকা জমা ও উত্তোলন দুই-ই করতে পারছে। এতে সময় বেঁচে যাচ্ছে। এতে ব্যাংকের ক্যাশ বিভাগের কাজও কমছে এবং জনবল নিয়ােগের খরচও কমবে। টাকা জমা রাখার পর ওই যন্ত্রেই তা গণনা করা হয়। আবার টাকা ছেড়া, ময়লা বা জাল কি না সেটিও যাচাই করবে যন্ত্রটি। মুহুর্তে এ কাজটি সম্পন্ন হবে এবং জমা টাকা সঠিক থাকলে জমাকারী গ্রাহককে একটি নিশ্চিতকরণ রসিদ দেওয়া হবে। যেখানে জমা নেওয়া টাকার সিরিয়াল নম্বর, পরিমাণ, যে অ্যাকাউন্টে জমা হচ্ছে তার নম্বরসহ প্রয়ােজনীয় তথ্য থাকবে। আর জমাকারী গ্রাহককে রসিদ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তার অ্যাকাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে।

আইবিবিএল সিআরএম এর সেবা
১. বাংলাদেশের যে কোন প্রান্তে কোন একাউন্ট ছাড়াই ২০,০০০/- টাকা পর্যন্ত মাত্র ১০/- টাকা খরচে নগদ টাকা পাঠানোর সুবিধা।
২. একাউন্ট স্টেটমেন্ট দেখা।
৩. একাউন্টের স্টপ পেমেন্ট করা।
৪. একাউন্টে দেয়া মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করা।
৫. একাউন্টের সাতদিনের নোটিশ প্রদান করা।
৬. ইউটিলিটি (গ্যাস, বিদ্যুৎ, ওয়াসা) বিল পরিশোধ করা।
৭. অন্য ব্যাংকের একাউন্টে বা কার্ডে মুহুর্তে টাকা পাঠানো।
৮. নতুন চেক বই চাহিদা (রিকুইজেশন) দেয়া।
৯. মোবাইল ফোন টপআপ/রিচার্জ করা।
১০. কার্ড ব্যতীত নগদ লেনদেন করা।
১১. খিদমাহ ক্রেডিট কার্ড বিল প্রদান করা।
১২. এম ক্যাশ একাউন্ট হতে টাকা উত্তোলন করা।
১৩. পজিটিভ পে নির্দেশনা প্রদান করা।
১৪. ফান্ড ট্রান্সফার করা।
১৫. নগদ টাকা উত্তোলন করা।
১৬. মেয়াদী হিসাব (MTDR) খোলার অনুরোধ করা।
১৭. ক্যাশ বাই কোডের মাধ্যমে নগদ উত্তোলন সুবিধা।

লেনদেনের বিস্তারিত
১. প্রতিটি লেনদেনের ন্যূনতম পরিমাণ পাঁচশত টাকা।
২. প্রতিটি লেনদেনের সর্বোচ্চ উত্তোলনের পরিমাণ ২০ হাজার টাকা।
৩. প্রতিটি লেনদেনের সর্বোচ্চ জমার পরিমাণ ২ লক্ষ টাকা।

বিস্তারিত জানতে
❏ ব্যাংকের যেকোন শাখায়/ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট/ বুথ ব্যাংকিংয়ে যোগাযোগ করুন।
❏ ✆ কল সেন্টারঃ ১৬২৫৯ অথবা ৮৩৩১০৯০ (দেশ)/ ০০৮৮-০২-৮৩৩১০৯০ (বিদেশ) এ কল করুন।
❏ টেলিফোনঃ (০২) ৯৫৬৩০৪০ (অটো হান্টিং), ৯৫৬০০৯৯, ৯৫৬৭১৬১, ৯৫৬৭১৬২, ৯৫৬৯৪১৭
❏ টেলেক্সঃ 642525 IBANK BJ, 632403 IBANK BJ, 671620 IBANK BJ
❏ ফ্যাক্সঃ ৮৮০- ২- ৯৫৬৪৫৩২, ৮৮০- ২- ৯৫৬৮৬৩৪
❏ সুইফটঃ IBBLBDDH
❏ কেবলঃ ISLAMIBANK
❏ ইমেইলঃ info@islamibankbd.com
❏ ওয়েবসাইটঃ www.islamibankbd.com

কার্টেসিঃ মোহাম্মদ শামসুদ্দীন আকন্দ, আইবিবিএল

Leave a Reply