রফতানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) ঋণের সুদের হার

0
314

বৈদেশিক লেনদেনে নিয়োজিত অথরাইজড ডিলারদেরকে উদ্দেশ্য করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে রফতানি বাণিজ্য বাড়াতে রফতানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) ঋণের সুদহার এক শতাংশ কমানোর সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ নির্দেশনা ২০২০ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে সার্কুলারে বলা হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, এখন থেকে ইডিএফ তহবিলের আওতায় লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদে ব্যাংক থেকে এ ঋণ নিতে পারবেন রফতানিকারকরা, যা আগে লাইবর সঙ্গে ২ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদ দিতে হতো।

বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো ইডিএফ তহবিলের আওতায় গ্রাহকদের ঋণ দিয়ে থাকে। পরে বাংলাদেশ ব্যাংক সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে লাইবরের সঙ্গে ১ শতাংশ যোগ করে ওই ঋণের অর্থ সরবরাহ করে। নতুন নির্দেশনায় সুদহার লাইবরের সঙ্গে ১ শতাংশ থেকে কমিয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সুদহার কমানোর ফলে গ্রাহক পর্যায়ে ইডিএফ ঋণের মোট সুদহার সাড়ে ৩ থেকে চার শতাংশ পর্যন্ত দাঁড়াতে পারে। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ঋণ নিতে হলে ১২ থেকে ১৫ শতাংশ সুদ দিতে হয়। স্বল্প সুদে বৈদেশিক মুদ্রায় ঋণ সহায়তা দেয়ার মাধ্যমে রফতানি বৃদ্ধির লক্ষ্য নিয়ে ১৯৮৯ সালে এ তহবিল তৈরি করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। বর্তমানে এ তহবিলের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৫০ কোটি ডলারে।

রফতানি বাণিজ্যে উৎসাহ ও প্রতিযোগিতামূলক বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশি রফতানিকারকদের সক্ষমতা বাড়াতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক স্বল্প সুদের এ ঋণ সরবরাহ করছে। তৈরি পোশাক, কাপড়, সিরামিক্স, প্লাস্টিক পণ্য রফতানিকারকদের এ তহবিল থেকে ঋণ দেয়া হয়।

সূত্রঃ বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক
এফই সার্কুলার নং-৪৪, তারিখঃ ১৯/১১/২০১৯

Leave a Reply