সোনালী ব্যাংক কর্তৃক সরকারি কর্মচারীদেরকে গৃহ নির্মাণ বা ফ্ল্যাট ক্রয় ঋণ প্রদান

0
2798

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ সরকারি কর্মচারীদেরকে সহজ শর্তে এবং স্বল্প সুদে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড গৃহ নির্মাণ বা ফ্ল্যাট ক্রয় ঋণ প্রদান করছে। নিম্নে সরকারি কর্মচারীদেরকে সহজ শর্তে এবং স্বল্প সুদে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড গৃহ নির্মাণ বা ফ্ল্যাট ক্রয় ঋণ প্রদানের নিয়মাবলী সমূহ তুলে ধরা হলো-

১) ১০% সরল সুদে (৫% সরকারি কর্মচারী কর্তৃক প্রদেয় এবং ৫% সরকার কর্তৃক ভর্তুকি হিসেবে প্রদেয়) সরকারি কর্মচারীদের গৃহ নির্মাণ বা ফ্ল্যাট ক্রয় ঋণ।
২) গৃহ নির্মাণ বা ফ্ল্যাট ক্রয় ঋণের জন্য আবেদনকারী-সরকারি কর্মচারীর চাকুরি স্থায়ী হতে হবে।
৩) সরকারি কর্মচারীর বয়স ১ জুলাই ২০১৮ তারিখে ৫৬ বছরের অধিক হবে না।
৪) বন্ধকের জন্য প্রস্তাবিত সম্পত্তি যে এলাকায় অবস্থিত সে এলাকায় অবস্থিত সোনালী ব্যাংকের শাখায় ঋণের আবেদন করতে হবে।
৫) ঋণের সর্বোচ্চ সিলিং ৭৫ লক্ষ টাকা (৫ম গ্রেড ও তদূর্ধ্ব) এবং সর্বনিম্ন সিলিং ২০ লক্ষ টাকা (১৮ তম গ্রেড হতে ২০ তম গ্রেড)।
৬) গৃহনির্মাণ ঋণের মেয়াদ ১ বছর গ্রেস পিরিয়ডসহ সর্বোচ্চ ২০ বছর এবং ফ্লাট ক্রয় ঋণের মেয়াদ ০৬ মাস গ্রেস পিরিয়ডসহ সর্বোচ্চ ২০ বছর।
৭) সরকারি নির্দেশনার পাশাপাশি সোনালী ব্যাংকের বিদ্যমান ও প্রচলিত নিয়মাচার অনুসরণ করে দ্রুত ঋণ প্রক্রিয়াকরণ করা হবে। এবং
৮) ঋণের প্রসেসিং ফি বা আগাম ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে কোন প্রকার অতিরিক্ত ফি দিতে হবে না।

আবেদন ফরম সংগ্রহ
 সরকারি কর্মচারীদের জন্য বাড়ি নির্মাণ ঋণের আবেদন ফরম পেতে ক্লিক করুন এখানে
 সরকারি কর্মচারীদের জন্য ফ্ল্যাট ঋণের আবেদন ফরম পেতে ক্লিক করুন এখানে

বাড়ি নির্মাণ ঋণের আবেদনের সংগে দাখিলতব্য দলিল ও কাগজপত্রের তালিকা
নিম্নে বাড়ি নির্মাণ ঋণের আবেদনের সংগে দাখিলতব্য দলিল ও কাগজপত্রের তালিকা সমূহ তুলে ধরা হলো-

প্রাইভেট প্লটের ক্ষেত্রে
১. জমির মূল মালিকানা দলিল;
২. এস.এ./আর.এস. রেকর্ডিয় মালিক থেকে মালিকানা স্বত্বের প্রয়োজনীয় ধারাবাহিক দলিল;
৩. সি.এস, এস.এ, আর.এস, বি.এস ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সিটি জরিপ খতিয়ানের জাবেদা নকল;
৪. জেলা/সাব রেজিষ্ট্রী অফিস কর্তৃক ইস্যুকৃত ১২ (বার) বছরের নির্দায় সনদ (এন.ই.সি)।

সরকারী প্লটের ক্ষেত্রে
১. প্লটের বরাদ্দ পত্র;
২. দখলহস্তান্তর পত্র;
৩. মূল লীজ দলিল ও বায়া দলিল (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে);
৪. লীজ দাতা প্রতিষ্ঠান হতে বন্ধক অনুমতি পত্র।

অন্যান্য কাগজপত্র
১. নামজারী খতিয়ানের জাবেদা নকল, ডি.সি.আর, হাল সনের খাজনা রশিদ;
২. অনুমোদন পত্রসহ অনুমোদিত নকশা;
৩. প্লটের সয়েল টেষ্ট রিপোর্ট;
৪. ইমারতের কাঠামো নকশা ও ভারবহন সনদ {৬ (ছয়) তলা পর্যন্ত ভবনের ক্ষেত্রে কর্পোরেশনের নির্ধারিত ছক মোতাবেক কমপক্ষে ৫ বছরের এবং ৭ (সাত) ও তদুর্ধ তলা ভবনের ক্ষেত্রে ১০ বছরের নির্মাণ ও ডিজাইন অভিজ্ঞতা সম্পন্ন গ্রাজুয়েট সিভিল ইঞ্জিনিয়ার/প্রকৌশল পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত ভারবহন সনদ, সনদ প্রধানকারী প্রকৌশলীকে অবশ্যই ইনষ্টিটিউশন অফ ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ এর সদস্য হতে হবে};
৫. ফ্ল্যাট বন্টনের রেজিস্ট্রিকৃত শরিকানা চুক্তিপত্র দলিল (গ্রুপ ঋণের ক্ষেত্রে);
৬. আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের সত্যায়িত কপি, বেতন সনদ পত্র, সত্যায়িত ছবি ও স্বাক্ষর;
৭. নকশা মোতাবেক বাড়ী নির্মাণ ও অন্য কোন ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ঋণ নাই মর্মে ষ্ট্যাম্প পেপারে ঘোষনাপত্র।

ফ্ল্যাট ঋণের আবেদনের সংগে দাখিলতব্য দলিল ও কাগজপত্রের তালিকা
নিম্নে ফ্ল্যাট ঋণের আবেদনের সংগে দাখিলতব্য দলিল ও কাগজপত্রের তালিকা সমূহ তুলে ধরা হলো-

প্রাইভেট প্লটের ক্ষেত্রে
১. জমির মূল মালিকানা দলিল;
২. এস.এ./আর.এস. রেকর্ডিয় মালিক থেকে মালিকানা স্বত্বের প্রয়োজনীয় ধারাবাহিক দলিল;
৩. সি.এস, এস.এ, আর.এস, বি.এস ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সিটি জরিপ খতিয়ানের জাবেদা নকল;
৪. জেলা/সাব রেজিষ্ট্রী অফিস কর্তৃক ইস্যুকৃত ১২ (বার) বছরের নির্দায় সনদ (এন.ই.সি);
৫. ফ্ল্যাট ক্রয়ের রেজিস্ট্রিকৃত বায়না চুক্তি;
৬. ফ্ল্যাটের মালিকানা দলিল (বন্ধক প্রদানের পূর্বে)।

সরকারি/লীজ প্রাপ্ত প্লটের ক্ষেত্রে
১. প্লটের বরাদ্দ পত্রে ফটোকপি;
২. দখল হস্তান্তর পত্রের ফটোকপি;
৩. মূল লীজ দলিল ও বায়া দলিলের ফটোকপি;
৪. লীজ দাতা প্রতিষ্ঠান হতে বন্ধক অনুমতি পত্র;
৫. ফ্ল্যাট ক্রয়ের রেজিস্ট্রিকৃত বায়না চুক্তি;
৬. ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র;
৭. ফ্ল্যাটের মালিকানা দলিল (বন্ধক প্রদানের পূর্বে)।

অন্যান্য কাগজপত্র
১. নামজারী খতিয়ানের জাবেদা নকল, ডি.সি.আর, হাল সনের খাজনা রশিদ;
২. জমির মালিক কর্তৃক ডেভেলপারকে প্রদত্ত রেজিস্ট্রিকৃত আম মোক্তার নামা দলিল;
৩. জমির মালিক এবং ডেভেলপার এর সাথে রেজিস্ট্রিকৃত ফ্ল্যাট বন্টনের চুক্তিপত্র;
৪. অনুমোদন পত্রসহ অনুমোদিত নকশার ফটোকপি;
৫. প্লটের সয়েল টেষ্ট রিপোর্ট এর ফটোকপি;
৬. ইমারতের কাঠামো নকশার ফটোকপি ও ভারবহন সনদ {৬ (ছয়) তলা পর্যন্ত ভবনের ক্ষেত্রে কর্পোরেশনের নির্ধারিত ছক মোতাবেক কমপক্ষে ৫ বছরের এবং ৭ (সাত) ও তদুর্ধ তলা ভবনের ক্ষেত্রে ১০ বছরের নির্মাণ ও ডিজাইন অভিজ্ঞতা সম্পন্ন গ্রাজুয়েট সিভিল ইঞ্জিনিয়ার/প্রকৌশল পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত ভারবহন সনদ, সনদ প্রধানকারী প্রকৌশলীকে অবশ্যই ইনষ্টিটিউশন অফ ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ এর সদস্য হতে হবে};
৭. ডেভেলপার কোম্পানীর সংঘ স্বারক, সংঘবিধি ও রিহ্যাব এর নিবন্ধন সনদ এর সত্যায়িত ফটোকপি;
৮. ডিজাইন মোতাবেক কাজ করার ব্যাপারে ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত আন্ডারটেকিং;
৯. অন্য কোন ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ঋণ নাই মর্মে ডেভেলপার কর্তৃক ষ্ট্যাম্প পেপারে ঘোষনাপত্র;
১০. আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের সত্যায়িত কপি, বেতন সনদ পত্র, সত্যায়িত ছবি ও স্বাক্ষর।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন
ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, জেনারেল অ্যাডভান্সেস ডিভিশন, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা।
ফোনঃ ০২-৯৫৫০৪৮৩; মোবাইলঃ ০১৭২৯-০৯০৭৯৫, ০১৭০৫-৫২২৫৪৮, ০১৯১১-৮০৬২৮৫
সোনালী ব্যাংক লিমিটেড
উদ্ভাবনী ব্যাংকিং এ আপনার বিশ্বস্ত সঙ্গী
www.sonalibank.com.bd

Leave a Reply