বাণিজ্যিক ব্যাংকের কার্যাবলি সমূহ

0
454

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ বাণিজ্যিক ব্যাংকের মূল লক্ষ্য মুনাফা অর্জন করা হলেও দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য ও শিল্প উন্নয়নে সহায়তার সাথে সাথে দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাণিজ্যিক ব্যাংক নানা মুখী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

Functions of Commercial Bank (বাণিজ্যিক ব্যাংকের কার্যাবলি)
একটি বাণিজ্যিক ব্যাংক সাধারণতঃ নিন্মলিখিত পাঁচ ধরনের কার্যাবলি সম্পাদন করে থাকে।
(ক) General Functions বা সাধারণ কার্যাবলি;
(খ) Developmental Functions বা উন্নয়নমূলক কার্যাবলি;
(গ) Representative Functions বা প্রতিনিধিত্বমূলক কার্যাবলি;
(ঘ) Helpful Functions বা সেবামূলক কার্যাবলি; ও
(ঙ) Other Functions বা অন্যান্য কার্যাবলি।
নিম্নে এগুলোর বিস্তারিত আলোচনা করা হলো-

(ক) General Functions (সাধারণ কার্যাবলি)
সাধারণ কার্যাবলীর মধ্যে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত সেগুলো হলো-

১) Receiving Deposit (আমানত গ্রহণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংকের সর্ব প্রথম কাজ হলো বিভিন্ন প্রকারের হিসাবে জনসাধারণের কাছ থেকে আমানত সংগ্রহ করা (যেমন- চলতি, সঞ্চয়ী, মেয়াদি আমানত ইত্যাদি)। চলতি হিসাবে কোন সুদ বা মুনাফা দেয়া হয় না, সঞ্চয়ী হিসাবে সুদ বা মুনাফা চার্জ করা হয় এবং নির্দিষ্ট পরিমাণে সুদ বা মুনাফা দেওয়া হয়। সুতরাং, বাণিজ্যিক ব্যাংক হিসাব খোলার মাধ্যমে গ্রাহকের নেটওয়ার্ক তৈরি করে।

২) Providing Investment (বিনিয়োগ প্রদান)
বাণিজ্যিক ব্যাংক শেয়ার, ঋণপত্র, সরকারি সিকিউরিটি ইত্যাদি লাভজনক খাতে বিনিয়োগ প্রদান করে করে থাকে৷

৩) Bill Discounting (বিল বাট্টাকরণ)
মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পূর্বে বাণিজ্যিক ব্যাংক ব্যবসায়ীদের প্রাপ্য বিনিময় বিল বাট্টা করে অর্থ উপার্জন করে থাকে৷

৪) Creation of Loan Deposits (ঋণ ও আমানত সৃষ্টি)
ঋণ গ্রহণের সময় ঋণগ্রহীতাকে ব্যাংকের সাথে একটি হিসাব খুলতে হয়। ঋণের অর্থ সেই হিসাবে জমা বা ক্রেডিট করা হয়। এরপর ঋণগ্রহীতা যে পরিমাণ টাকা সেই হিসাব থেকে উত্তোলন করে, সেটা ঐ হিসাবে ডেবিট করা হয়। এভাবে ব্যাংক ঋণের মাধ্যমে আমানতের সৃষ্টি করে থাকে।

৫) Creation of Medium of Exchange (বিনিময়ের মাধ্যম সৃষ্টি)
সেন্ট্রাল ব্যাংক নোট ইস্যু করে অন্যদিকে, বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহ বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে চেক, হুন্ডি, বিনিময় বিলের প্রচলন ইত্যাদি কাজ করে থাকে।

৬) Transfer of Money (অর্থ স্থানান্তর)
ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে গ্রাহকের নির্দেশ মোতাবেক বিভিন্ন ধরনের অর্থ দেশে-বিদেশে স্থানান্তর করে থাকে।বিভিন্নভাবে ডিমান্ড ড্রাফ্ট, টেলিগ্রাফ ট্রান্সফার ইত্যাদির মাধ্যমে হিসাবে অর্থ প্রেরণ করা হয়।

(খ) Developmental Functions (উন্নয়নমূলক কার্যাবলি)
উন্নয়নমূলক কার্যাবলীর মধ্যে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত সেগুলো হলো-

১) Formation of Capital (মূলধন গঠন)
সমাজের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয় বাণিজ্যিক ব্যাংক আমানতের মাধ্যমে সংগ্রহ করে তা বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে বিনিয়োগের জন্য ঋণ দেয়। দেশের মূলধন গঠনে সাহায্য করা এবং সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করা বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান অন্যতম উদ্দেশ্য।

২) Help in Trade and Commerce (ব্যবসা-বাণিজ্যে সহযোগিতা)
বাণিজ্যিক ব্যাংক ব্যবসা ও বাণিজ্য প্রসারিত করতে বিভিন্ন ধরনের সহায়তা করে থাকে। অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক বাণিজ্যে গ্রাহকদের লেটার অফ ক্রেডিট বা এলসি, ক্রেডিট ক্রয়, ছাড় ইত্যাদিতে সহায়তা করে থাকে।

৩) Help for Loan Control (ঋণ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা)
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঋণনীতি ও ঋণ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ ও সহযোগিতা প্রদান করা বাণিজ্যিক ব্যাংকের অন্যতম একটি কাজ।

৪) Investment in Manufacturing Sector (উৎপাদন খাতে বিনিয়োগ)
ঋণ প্রদান করা ব্যাংকের একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। কারণ ঋণগ্রহীতাদের ইন দিয়ে ব্যাংক একদিকে যেমন উৎপাদনমুখী কাজে সহায়তা করে, অন্যদিকে সেই ঋণের উপর যে সুদ আদায় করে তা ব্যাংকের প্রধান উৎস হিসেবে পরিগণিত হয়ে থাকে। ফলে উৎপাদনমুখী খাতে বিনিয়োগ করার ফলে কর্মমুখী তৎপরতা দেখা দেয় এবং বেকারত্ব দূরীভূত হয়।

(গ) Representative Functions (প্রতিনিধিত্বমূলক কার্যাবলি)
প্রতিনিধিত্বমূলক কার্যাবলীর মধ্যে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত সেগুলো হলো-

১) Collect Money for Customers (গ্রাহকদের পক্ষে অর্থ সংগ্রহ)
কমার্শিয়াল ব্যাংক ক্লায়েন্টের পক্ষ থেকে চেক, বিনিময় বিল, প্রমিজরি নোট, পেনশন, ডিভিডেন্ড লভ্যাংশ, সাবস্ক্রিপশন, বীমা প্রিমিয়াম, সুদ ইত্যাদি সংগ্রহ করে থাকে।

২) Payment on behalf of Customers (গ্রাহকদের পক্ষে অর্থ পরিশোধ)
কমার্শিয়াল ব্যাংক ক্লায়েন্টের পক্ষ থেকে চেক, বিনিময় বিল, প্রমিজরি নোট, পেনশন, ডিভিডেন্ড লভ্যাংশ, সাবস্ক্রিপশন, বীমা প্রিমিয়াম, সুদ ইত্যাদি সংগ্রহ করে এবং গ্রাহকের হিসাবে জমা করে বা গ্রাহককে পেমেন্ট দিয়ে থাকে।

৩) Purchase and Sale of Shares and Securities (শেয়ার, সিকিউরিটি ইত্যাদি ক্রয়-বিক্রয়)
বাণিজ্যিক ব্যাংক গ্রাহকদের পক্ষ থেকে শেয়ার এবং সিকিউরিটিজ ক্রয় এবং বিক্রয় করে থাকে।

৪) Supervision of Property (সম্পত্তির তত্ত্বাবধায়ন)
অছি বা সম্পত্তির তত্ত্বাবধায়ক (Trustee) হিসেবে কাজ করে ব্যাংক কমিশন আদায় করে থাকে৷

(ঘ) Helpful Functions (সেবামূলক কার্যাবলি)
সেবামূলক কার্যাবলীর মধ্যে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত সেগুলো হলো-

১) Safe Custody of Valuables (মূল্যবান সামগ্রী সংরক্ষণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংক গ্রাহকের অর্থ ও মূল্যবান সামগ্রীর নিরাপত্তা প্রদান করে “লকার” সেবার প্রবর্তন করে (যেমন-নথি, শেয়ার, সিকিউরিটিজ ইত্যাদি)।

২) Supply of Various Cheque (বিভিন্ন চেকের সরবরাহ)
ব্যাংক ড্রাফট, ট্রাভেলারস চেক থেকে কমিশন হিসেবে প্রচুর আয় করে থাকে বাণিজ্যিক ব্যাংক৷

৩) Data Collection and Supply (তথ্য সংগ্রহ ও সরবরাহ)
বাণিজ্যিক ব্যাংক বিভিন্ন গ্রাহকের তথ্য সমূহ সংগ্রহ করে এবং তা বাংলাদেশ ব্যাংকের চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ করে থাকে।

৪) Foreign Exchange Trading (বৈদেশিক মুদ্রার লেনদেন)
বৈদেশিক মুদ্রা ক্রয়-বিক্রয় করে বাণিজ্যিক ব্যাংকের মুনাফা অর্জন করা অন্যতম একটি কার্যাবলি৷ এছাড়া বৈদেশিক বাণিজ্যে ও লেনদেন নিষ্পত্তিতে ভূমিকা পালন করে কমিশন বা সার্ভিস হিসেবে বাণিজ্যিক ব্যাংক কাজ করে তার আয়ের একটি অংশ অর্জন করে থাকে৷

৫) Assistant as an Adviser (উপদেষ্টা হিসাবে সহায়তা)
ব্যাংক যখন কোন প্রকল্পে অর্থ লগ্নি করে, তখন প্রকল্পের লাভজনকতা মূল্যায়ন করে সেখানে বিভিন্ন ধরনের গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়ে প্রকল্পেকে সাহায্য করে থাকে। এছাড়াও আরো বিভিন্ন রকম আর্থিক এবং অর্থ সংক্রান্ত পরামর্শ ব্যাংক গ্রাহককে দিয়ে থাকে।

(ঙ) Other Functions (অন্যান্য কার্যাবলি)
অন্যান্য কার্যাবলীর মধ্যে যে বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত সেগুলো হলো-

১) Employment (কর্মসংস্থান)
দেশের বেকারত্ব দূরীকরণের জন্য সরকারকে সাহায্য করা ব্যাংক ব্যবস্থার একটি অন্যতম কাজ। ব্যাংকগুলো সেসব কারবারি অর্থায়ন করতে পারে, যেগুলো অধিকহারে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে থাকে। যেমন- মূলধন নির্ভর প্রযুক্তির বদলে শ্রম নির্ভর প্রযুক্তিতে অর্থায়ন করে ব্যাংক অধিকতর কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে সরকারকে সাহায্য করে থাকে।

) Development and Simplification of Living Standards (জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন ও সহজীকরণ)
গ্রাহকের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নকল্পে ব্যাংক বিভিন্ন ধরনের নতুন নতুন সেবা ও পণ্য সৃষ্টি করে থাকে। ক্রেডিট কার্ড দিয়ে একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত গ্রাহক নগদ টাকা ছাড়াই পণ্য ক্রয় করতে পারে। এটিএম মেশিন থেকে নগদ টাকা তোলা যায়।

৩) Public welfare (জনকল্যাণ)
মুনাফা অর্জনের পাশাপাশি জনকল্যাণমূলক কাজ করা বাণিজ্যিক ব্যাংকের একটি পরোক্ষ উদ্দেশ্য।

উপরোক্ত কার্যাবলী ছাড়াও বাণিজ্যিক ব্যাংক ব্যবসা-বাণিজ্য সংক্রান্ত তথ্য সম্বলিত সাময়িকি প্রকাশ করে ব্যবসায়ীদের সহায়তা করে। বিভিন্ন বিবরণী ও তথ্য সরবরাহ করে বাণিজ্যিক ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক ও সরকারকে অর্থনৈতিক পরিকল্পনা গ্রহণে সহায়তা দান করে দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।

Leave a Reply