চেক ক্লিয়ারিং এ উপস্থাপন করার ক্ষেত্রে ব্যাংকারের করণীয়

0
4821

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ সাম্প্রতিককালে চেক জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রাহকের হিসাব থেকে অর্থ আত্মসাতের ঘটনা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিভিন্ন ধরনের উন্নত প্রযুক্তি, অনলাইন ব্যাংকিং, গ্রাহকের সরলতার সুযোগ ইত্যাদিকে কাজে লাগিয়ে নগদ এবং ক্লিয়ারিং চেক জালিয়াতির মাধ্যমে বিভিন্ন সঙ্ঘবদ্ধ প্রতারকচক্র গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাব থেকে অর্থ আত্মসাৎ করে চলছে যা গ্রাহকের স্বার্থ ক্ষুণ্ন করার পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যাংকের ভাবমূর্তিকেও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

নিম্নে BACH এর মাধ্যমে ক্লিয়ারিং চেক উপস্থাপন করার ক্ষেত্রে ব্যাংকারের করণীয় সমূহ তুলে ধরা হলো
বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ইস্যুকৃত পিএসডি সার্কুলার নং ০৪/২০১৩ তারিখঃ ২৬/১১/২০১৩ এর মাধ্যমে Positive Pay Instruction গ্রহণ করার নির্দেশনা BACH এর ক্ষেত্রে এখনও বহাল রয়েছে। সার্কুলারটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে Positive Pay Instruction বা সাতদিনের নোটিশ ছাড়া ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) বা তদুর্ব্ধ টাকার কোন চেক পেমেন্ট করা যাবে না।

জমা কারীর কাছ থেকে চেক গ্রহণ করার সময় চেকের তারিখ, স্বাক্ষর, কথা এবং অংকে টাকার পরিমাণ, প্রাপকের নাম, জমা ভাউচারে জমাকারীর স্বাক্ষর, মোবাইল নম্বর, প্রাপকের হিসাব নম্বর, শাখার নাম সঠিকভাবে লেখা হয়েছে কিনা তা ভালোভাবে যাচাই করে দেখতে হবে

অনলাইন বা অন্য শাখায় জমা হবে এমন চেক উপস্থাপনের পূর্বে সর্বোচ্চ সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে এ ধরনের চেক যদি বাহক মারফত জমা করা হয়, তাহলে বাহকের পরিচিতি (প্রয়োজনে গ্রাহককে ফোন করে) নিশ্চিত করতে হবে বাহকের পরিচিতি নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হলে অনলাইন চেক জমা নেয়া যাবে না এক্ষেত্রে বাহককে গ্রাহকের শাখায় উত্তর চেক জমা করার জন্য পরামর্শ দেয়া যেতে পারে সংঘটিত জালজালিয়াতিতে দুষ্কৃতিকারীরা ভুয়া পরিচয় দিয়ে বাহক বেশে জাল চেক জমা করে থাকে

অনলাইন বা অন্য শাখায় চেক উপস্থাপন করার পূর্বে সংশ্লিষ্ট গ্রাহকের হিসাবটি সাম্প্রতিক কালে খোলা কিনা তা পরীক্ষা করে দেখতে হবে চেকে টাকার পরিমাণ ৫০ হাজার বা তদূর্ধ্ব টাকার হলে সংশ্লিষ্ট হিসাবে লেনদেনের পরিমাণ পরীক্ষা করে দেখতে হবে প্রয়োজনে গ্রাহকের TP এবং KYC পরীক্ষা করে দেখতে হবে এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট শাখার সাথে পরামর্শ করে সাহায্য নেয়া যেতে পারে সন্দেহজনক মনে হলে চেক উপস্থাপন না করে জমাকারীকে হিসাবধারীর শাখায় চেক জমা করার জন্য পরামর্শ দেয়া যেতে পারে

অনলাইন বা অন্য শাখা থেকে আপনার শাখার উপর কোন চেক উপস্থাপন করা হয়েছে কিনা তা নিয়মিত পরীক্ষা করে দেখতে হবে এ ধরনের চেক সংশ্লিষ্ট হিসাবে Credit করার পূর্বে চেকে উল্লিখিত Beneficiary এর নাম হিসাবে উল্লেখিত নামের সাথে মিলিয়ে দেখতে হবে উভয় নামে মিল না থাকলে হেড অফিসের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের শাখার সাথে যোগাযোগ করে পেয়িং ব্যাংকে ফেরত পাঠাতে হবে

Bangladesh Automated Cheque Processing System Operation Rules and Procedures অনুযায়ী চেকের সঠিকতা (prima facie genuineness) যাচাই না করে কোন Cheque উপস্থাপন করা যাবে না চেকের গায়ে জলছাপ (Watermark), অতিবেগুনি রশ্মি (UV- Ultra Violet Ray) এবং Micro Line সঠিকভাবে আছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখতে হবে সঠিকতা যাচাই করার ক্ষেত্রে Heavy Duty Multi-functional MICR চেক বা Fake Note Detecting মেশিন এর মাউস ব্যবহার করে চেকের এমআইসিআর লাইন, চেকের সিরিজ নম্বর, রাউটিং নম্বর, চেকে মুদ্রিত গ্রাহকের নাম, হিসাব নম্বর এবং টাকার পরিমাণ কথায় ও অংকে ইত্যাদিতে কোন প্রকারের ঘষামাজা বা কাটাকাটি আছে কিনা তা ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখতে হবে এ ধরনের কোনো ঘষামাজা (alteration/tempering) থাকলে সংশ্লিষ্ট জায়গায় অতিবেগুনি রশ্মি (UV- Ultra Violet Ray) অনুজ্জ্বল হয়ে পড়ে অথবা সাদা হয়ে যায়, যা মাউস ছাড়া খালি চোখে বোঝা যায় না এধরনের ঘষামাজা থাকলে চেক উপস্থাপন করা যাবে না

তাড়াহুড়া করে চেক উপস্থাপন করা যাবে না চেকের সঠিকতা যাচাইয়ের জন্য পর্যাপ্ত সময় পাওয়া না গেলে পরবর্তী কর্মদিবসে চেকটি উপস্থাপন করতে হবে

Leave a Reply