ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের প্রয়োজনীয় ঋণ দেওয়ার নির্দেশ

0

সারাদেশে সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতি পোষাতে প্রয়োজনীয় ঋণ সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে এই ঋণ দিতে বলা হয়েছে। আরও নির্দেশনা দেওয়া হয়, পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত বিতরণ করা কৃষি ঋণ আদায় স্থগিতসহ ডাউন পেমেন্টের শর্ত শিথিল এবং ঋণ পুনঃতফসিল সুবিধা দিতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার ২৩ জুলাই, ২০২০ বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংকসমূহের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে নির্দেশ প্রতিপালনে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ (Banking News Bangladesh. A Platform for Bankers Community.) প্রিয় পাঠকঃ ব্যাংকিং বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ এ লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

উক্ত সার্কুলারে বলা হয়েছে, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার কৃষকের পুরনো ঋণ পরিশোধ না থাকলেও নতুন করে ঋণ দিতে হবে। তবে পুরনো ঋণের জন্য কোনো ধরনের হয়রানি করা যাবে না।

উক্ত সার্কুলার অনুযায়ী, আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতি মােকাবেলায় নিম্নোক্ত পদক্ষেপসমূহ আশু বাস্তবায়ন করার জন্য ব্যাংকগুলোকে নিম্নোক্ত নির্দেশনা প্রদান করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকঃ
১) ক্ষতিগ্রস্থ অঞ্চলসমূহে কৃষকদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠে কৃষি উৎপাদন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে ফসল, মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ খাতে প্রকৃত চাহিদা ও বাস্তবতার নিরিখে নতুন ঋণ বিতরণ;
২) পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের কৃষি ঋণ আদায় স্থগিতকরণ, ডাউন পেমেন্ট এর শর্ত শিথিলপূর্বক ঋণ পুনঃতফসীলীকরণ সুবিধা প্রদান;
৩) নতুন করে কোন সার্টিফিকেট মামলা না করে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে অনাদায়ী ঋণসমূহ তামাদি হওয়া প্রতিবিধানে প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং দায়েরকৃত সার্টিফিকেট মামলাগুলাের তাগাদা আপাততঃ বন্ধ রেখে সােলেনামার মাধ্যমে মামলার নিষ্পত্তিকরণ;
৪) বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকগণ যাতে প্রকৃত চাহিদা মােতাবেক যথাসময়ে নতুন ঋণ সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন এবং ঋণ পেতে কোনরূপ হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়টি নিবিড়ভাবে তদারকিকরণ;
৫) এছাড়া, ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে বসতবাড়ির আঙিনায় হাঁস-মুরগী ও গবাদী পশু পালন, গাে-খাদ্য উৎপাদন ও ক্রয় এবং অন্যান্য আয় উৎসারী কর্মকান্ডে ঋণ প্রদানের প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ।

Leave a Reply