জীবনে একসাথে এতো সৎ মানুষের সমন্বয় আমি দেখিনি: চেয়ারম্যান আইবিবিএল

0
481

ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশঃ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের নতুন চেয়ারম্যান আরাস্তু খান বলেছেন, আমি অনেক অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকে দায়িত্ব পালন করেছি কিন্তু এতো সৎ লোকের সাথে আমি জীবনে পূর্বে কখনো কাজ করার সুযোগ পাইনি। এক সাথে এতো সৎ মানুষের সমন্বয় দেখে আমি অভিভূত।

গতকাল শুক্রবার সকালে মানিকগঞ্জ ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালের কনসালটেন্টদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মানুষ সম্পূর্ণ সততার সাথে হাসিমুখে, তুলনামূলকভাবে কম বেতনে এভাবে তখনই কাজ করতে পারে যখন মানুষ কমিটেড থাকে। আমি দেখেছি ইসলামী ব্যাংকের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী সৎ। তারা এতোটা দায়িত্ব নিয়ে কাজ করে বলেই আজ ইসলামী ব্যাংক সবচেয়ে বেশি লাভ করেছে আবার মানুষকে বেশি সেবা দিয়েছে। মানুষের আস্থা অর্জন করতে হলে কি করতে হয় তা ইসলামী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ, এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তা দের্খিয়ে দিয়েছে। ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে জঙ্গি অর্থায়নের কোনো প্রমাণ নেই।

‘আমি ব্যাংকের স্টাফদের বেতন বাড়ানোর কথা বলেছি। অনেক ব্যাংকের এমডি পযর্ন্ত বেশি বেতন পেলে প্রতিষ্ঠান পরিবর্তন করে কিন্তু ইসলামী ব্যাংকের একজন কর্মচারীও বেতনের আশায় প্রতিষ্ঠান ছেড়ে যায়নি। আমি এতো সৎ মানুষের সাথে কাজ করতে পেরে সত্যিই গর্বিত।’

তিনি এ সময় মানিকগঞ্জে ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালের নিজস্ব জায়গায় বহুতল ভবন নির্মাণে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

হাসপাতালের নিজস্ব জায়গায় অনুষ্ঠিত হাসপাতালের চেয়ারম্যান এস এম রইস উদ্দীনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, ডা: প্রফেসার মো: সিরাজ উদ্দিন, ডা: প্রফেসার মোহাম্মদ আলী, ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের হাসপাতাল সেকশনের পরিচালক মোস্তফা কামাল, হাসপাতালের এমডি সরকার মোহাম্মাদ মাসুদউর রহমান, পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ জামাল কোম্পানী, অ্যাড. পরিচালক মো: আওলাদ হোসেন, সুপার মো: আবুল কালাম আযাদ প্রমুখ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, সরকারের পাশাপাশি ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল মানুষের যে সেবা করে যাচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। বিত্তশালী মানুষদের শুধু অর্থের জন্যে নয়, মানুষের সেবা করার জন্যে এমন মহৎ কাজে এগিয়ে আসতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে এস এম রইস উদ্দীন বলেন, আমরা হাসপাতাল পরিচালনা করছি অর্থ উর্পাজনের জন্যে নয়, মানুষের সেবা করার জন্যে। আমাদের এ আর্দশ অব্যাহত থাকবে। আমরা সবার সহযোগিতা কামনা করছি।

সূত্রঃ নয়া দিগন্ত

Leave a Reply